September 20, 2018

চুয়াডাঙ্গার জয়রামপুরে ট্রাক-আলমসাধু সংঘর্ষে নিহত ১২ ॥ আহত ১১

2

শামসুজ্জোহা পলাশ, চুয়াডাঙ্গা :
চুয়াডাঙ্গার জয়রামপুরে ট্রাক-আলমসাধু সংঘর্ষে ১২ জন নিহত ও ১১ জন আহত হয়েছে। আজ রবিবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে এই মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনাটি ঘটে। আহতদের মধ্যে ২ জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। বাকী ৯ জনকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহত হলেন, দামুড়হুদা উপজেলার বড় বলদিয়া গ্রামের রহিম মন্ডলের ছেলে আব্দার আলী (৪৫), ঠান্ডুর ছেলে বিল্লাল (৪০), মৃত. খোদা বক্সের ছেলে জর্জ মিয়া (২৮), মৃত. ইমানের ছেলে আকুব্বর (৪৫), মৃত. গোলামের ছেলে ইজ্জত আলী (৫৫), কিতাব আলীর ছেলে নজির (৬০), গাজির ছেলে শান্ত (২৩), ভোলাই মন্ডলের ছেলে বিল্লাল (৪৫), মৃত. বাবুল আক্তারের ছেলে হাফিজুল (৩৫), কানাই এন্ডলের ছেলে লাল মহাম্মদ (৩৫) ও সুলতানপুর গ্রামের ফিরোজের ছেলে শফিকুল (২৫), মৃত. রমজানেরর ছেলে রফিকুল (৪০)।
3
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদশীরা জানান, চুয়াডাঙ্গা থেকে বালি বোঝাই ট্রাক দর্শনার দিকে যাচ্ছিল। এ সময় ২৩ জন মাটি কাটা শ্রমিক একটি আলমসাধু যোগে দামুড়হুদার বড়বলদিয়া গ্রাম থেকে চুয়াডাঙ্গা মুন্সিগঞ্জে আসছিল। ট্রাক-আলমসাধু জয়রামপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে পৌছালে মুখোমুখি সংঘর্ষে র্ঘটনাটি ঘটে। ঘটনাস্থলেই ৮ জন ও চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তির পর ২জন এবং দামুড়হুদা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের আরো ১ জন মারা যায়।
প্রত্যাক্ষদশী হোটেল ব্যবসায়ী বারিকুল জানান, ট্রাকের ড্রাইভার ঘুমন্ত অবস্থায় গাড়িটি চালাচ্ছিল। তার কারণে দূর্ঘটনাটি ঘটে।
1

দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছালমা জাহান পারুল, ফায়ার সার্ভিসের ২ ইউনিট, পুলিশ, বিজিবি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দ্রুত উদ্ধার কাজ সম্পন্ন করেন।
চুয়াডাঙ্গার সহকারি পুলিশ সুপার কলিমোল্ল্যা জানান, ঘটনাস্থলেই ৮ জন এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ সহ মোট ১২ নিহত হয়েছে। তবে কি কারণে দূর্ঘটনাটি ঘটেছে তা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
অপরদিকে, একসাথে একই গ্রামের ১০ নিহত হওয়ায় বড় বলদিয়া গ্রামে বইছে শোকের মাতন গ্রাম জুড়ে ধমধমে অবস্থা।
এছাড়া এই দুর্ঘটনার সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে জেলা জুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

Related posts