November 19, 2018

চাঞ্চল্যকর ঘটনা; বাছুর নিয়ে ডিসির কার্যালয়ে!

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ  অসুস্থ বাছুর কোলে নিয়ে ডিসির কার্যালয়ে যাওয়ার মতো চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে আসামের হাইলাকান্দি জেলায়। এ ঘটনাটি এখন সেখানে মুখরোচক আলোচনার বিষয়ে পরিণত হয়েছে।

এ কাণ্ডটি ঘটে শুক্রবার। সবে কাজ শুরু হয়েছে হাইলাকান্দির জেলা প্রশাসক দফতরে। হঠাৎ দফতরের দোতলায় জেলা প্রশাসকের ঘরের সামনে বাছুর কোলে হাজির হন আফতাব। নিরাপত্তাকর্মীরা হতবাক হয়ে যান। কীভাবে বাছুর নিয়ে কেউ ডিসির ঘরের সামনে পৌঁছে গেলেন, সেই প্রশ্ন ছড়ায় প্রশাসনিক মহলে। ডিসির কাছে বাছুর আসার গল্প ছড়িয়ে পড়তেই মুহূর্তেই ভিড় জমে যায় কার্যালয়ের আশপাশে। ভিড় সামলাতে হিমশিম খায় পুলিশ। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

পরিস্থিতি সামলাতে কাজ ফেলে সেখানে ছুটে যান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এফ আর লস্কর। কথা বলেন বাছুরের মালিক আফতাবউদ্দিনের সঙ্গে।

আফতাব জানান, এক দিন আগে বাছুরটি জন্মেছে। মায়ের দুধ খাচ্ছে ঠিকঠাক। হাঁটতে-চলতেও কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু কিছুতেই মলত্যাগ করতে পারছে না সেটি। একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার পরামর্শে আফতাব বাছুরটিকে নিয়ে যান হাইলাকান্দি শহরের জেলা পশু চিকিৎসালয়ে। কিন্তু অপেক্ষা করেও সেখানে কোনো চিকিৎসকের দেখা পাচ্ছিলেন না তিনি। আফতাবের কথায়, তখন ওখানকার এক কর্মী তাকে বাছুর নিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে যেতে বলেন- জানান আফতাব। আর তাই তিনি ডিসি কাছে বাছুরটিকে নিয়ে আসেন।

খবর জেনে আফতাবকে নিজের কার্যালয়ে ডেকে পাঠান ডিসি মলয় বরা। ডিসির ডাক পেয়ে সেখানে যান জেলার পশু চিকিৎসা কর্মকর্তা রসিদ আহমেদও। তিনি বাছুরটিকে শিলচরে পাঠানোর পরামর্শ দেন। তিনি বাছুরের অস্ত্রোপচার করতে হবে বলে ডিসিকে জানিয়ে চাপ সামলান কর্মকর্তা।

আলোচনা কিন্তু তাতে থেমে যায়নি। আদালতে হাতি পেশ করার গল্পের সঙ্গে জুড়ে যায় আফতাবের বাছুরের কাহিনিও। কয়েক মাস আগে হাইলাকান্দির আদালতে হাজির হয়েছিল হাতি। এবার জেলা প্রশাসকের দফতরের দরজায় পৌঁছাল সদ্যোজাত বাছুর! তাতেই দিনভর মশগুল থাকল গোটা শহর।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts