November 15, 2018

চাঁদপুর আনন্দবাজারে মেঘনার ভাঙ্গন হুমকির মুখে ৪শ’ পরিবার

06

এ কে আজাদ, চাঁদপুর : চাঁদপুর শহরতলীর তরপুরচন্ডী ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকায় গত কয়েকদিন ধরে মেঘনার ভাঙন দেখা দিয়েছে। ইতোমধ্যে কয়েকটি ঘর নদীতে বিলীন হয়ে যাওয়ায় ওই এলাকার ১০/১২ টি ঘর অন্যত্র সরিয়ে ফেলা হয়েছে। ফলে ওই এলাকার ৪০০ টি পরিবার রয়েছে নদী ভাঙনের হুমকির মুখে। তারা প্রতিনিয়ত আতঙ্কে দিনাদিপাত করছেন।

জানা গেছে, গত ১৫ এপ্রিল ঈদের আগের দিন গভীর রাত থেকে চাঁদপুর সদর উপজেলার তরপুরচন্ডী ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকায় আকস্মিক মেঘনার ভাঙ্গন শুরু হয়। এতে ওই এলাকার মানুষ ঈদের আনন্দ উপভোগ করার চেয়ে বসতভিটা রক্ষায় ব্যস্ত হয়ে পড়ে। স্থানীয়রা জানায়, আকস্মিক এই ভাঙ্গনে সবার মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ ভাঙ্গন অব্যহত থাকলে এ এলাকার ৪০০ পরিবার ভিটেমাটি ছাড়া হয়ে পড়বে। প্রশাসনের লোকজন আসলেও এখনো ব্যবস্থা নেয়নি। তবে আমরা এলাকাবাসী বাঁশ দিয়ে মাটির বস্তা ফেলে বসতভিটা রক্ষার চেষ্টা করছি।

স্থানীয় বাসিন্দা রসুল বেপারী, সানা মিয়া ও মমতাজ বেগম বলেন, আমরা কোন সাহায্য চাই না। নদী ভাঙ্গন রোধ করে দিলেই আমরা পরিবার পরিজন নিয়ে দুবেলা দুমুঠো খেয়ে কোন রকমে বেঁচে থাকতে পারবো।

এদিকে খবর পেয়ে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান, ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেন।  ভাঙ্গন রোধে সব ধরনের ব্যবস্থা নেবেন বলে স্থানীয়দের আশ্বস্ত করেন জেলা প্রশাসক।

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান বলেন, ইউএনও, এসিল্যান্ড ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তারা ভাঙ্গন রোধে বালি ভর্তি জিও ব্যাগসহ সব ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছেন। তবে ঈদের কারনে লোকবলের অভাবে একটু দেরী হচ্ছে।

Related posts