September 26, 2018

চাঁদপুর পৌর নির্বাচনে মেয়র মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ব্যস্ত লবিংয়ে

দলীয় মনোনয়ন পেতে জোর লবিং

এ কে আজাদ, চাঁদপুরঃ আগামী ৩০ডিসেম্বর একযোগে সারাদেশে চাঁদপুরের ৬টি পৌরসভাসহ মোট ২শ’ ৩৬টি পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে ঘিরে চাঁদপুরের ৬টি পৌরসভাই প্রাথীরা দলীয় মনোনয়ন পেতে জোর লবিং করে যাচ্ছে।এরমধ্যে হাজীগঞ্জ পৌরসভার রাজনৈতিক দু’দলের মেয়র প্রার্থীরা এখন দলীয় মনোনয়ন পেতে জোর লবিংয়ে ব্যস্থ সময় কাটাচ্ছে। কে পাবে দলীয় সমর্থন এ নিয়ে এখন হাজীগঞ্জ পৌরসভার ভোটারদের মাঝে ব্যাপক আলোচনার ঝড় উঠেছে। ইতিমধ্যে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় চষে বেড়িয়েছে ভোটারদের কাছে। এখন তারা দলীয় মনোনয়ন পেতে জোর লবিংয়ে ব্যস্থ। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হাজীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী মোঃ মাইনুদ্দিন। দীর্ঘ ৫ বছর তিনি মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। দলীয় মনোনয়ন পেলে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী তিনি।

হাজীগঞ্জ শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি মাহবুব-উল-আলম লিপন। তিনিও দীর্ঘদিন দলের কান্ডারী হয়ে গণসংযোগ করে আসছেন। মনোনয়ন প্রত্যাশা তিনিও করেন। দলীয় সমর্থন পেলে এবং সকলের সহযোগিতা থাকলে তিনিও জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী। অন্যদিকে হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আহসান হাবিব অরুন কিছুদিন পূর্বে থেকে নিজেকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি আওয়ামীলীগ সমর্থিত বলেই দলীয় মনোনয়ন পেতে লবিং চালাচ্ছেন। এদিকে গত দু’মেয়াদের নির্বাচিত মেয়র আবদুল মান্নান খান বাচ্চু তৃতীয়বার নির্বাচন করার আশা ব্যক্ত করে ক্ষমতা থাকাকালীন সময় থেকেই প্রচারণা চালিয়ে গণসংযোগ করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। যেহেতু দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করার কথা সেহেতু ১১বছর ক্ষমতাশীন এই মেয়র দলীয় টিকেট পেতে শতভাগ আশাবাদি। বিএনপির আরেক কান্ডারী হেলাল উদ্দিন মজুমদার।

তিনি এম.এ মতিন সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনের প্রার্থীতা ঘোষণা করে প্রচারণা করে যাচ্ছেন। গত আন্দোলন সংগ্রামে বন্দি নেতাকর্মীদের মুক্তির জন্য বহু অর্থ ব্যয় করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন তিনি। হেলাল মজুমদার দলীয় সমর্থনও শহীদ জিয়ার ধানের শীষ প্রতীক পেতে দীর্ঘদিন প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এদিকে জাতীয় ১৪ দলের শরীক জাতীয় পার্টির কোন প্রার্থী এখনও মাঠে দেখা মিলেনি। কে পাবেন দলীয় টিকেট এ নিয়ে হাজীগঞ্জে বেশ কয়েকদিন যাবৎ গুঞ্জণ ছড়িয়ে বেড়াচ্ছে ভোটারদের মাঝে। তবে দু’রাজনৈতিক দলের যোগ্য এবং ত্যাগী নেতাদের দলীয় প্রতীক দিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দিলে সাধারণ ভোটারদের মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিবেনা বলে জানান ভোটাররা।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts