September 26, 2018

চাঁদপুরকে ঢেকে ফেলেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী!

এ কে আজাদ,চাঁদপুরঃ  রাত পোহালেই চাঁদপুর জেলার পাঁচ পৌরসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ । ইতমধ্যে পৌর এলাকা গুলো নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ।  পৌরসভা পাঁচটি হচ্ছে মতলব উত্তরের ছেঙ্গারচর, মতলব, হাজীগঞ্জ, কচুয়া ও ফরিদগঞ্জ। এই পাঁচ পৌরসভায় মেয়র, সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে মহিলা কাউন্সিলরসহ সর্বমোট ২শ’ ৭০ জন প্রার্থীর মধ্যে আগামীকাল গোপন ব্যালটে ভোটযুদ্ধ হবে। এদের মধ্যে মেয়র পদে ১৯, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১শ’ ৯৯ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৫২ জন।

আগামীকাল বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলবে। পাঁচটি পৌরসভায় ৭৯টি ভোটকেন্দ্রে এ ভোট অনুষ্ঠিত হবে। মোট ভোটার ১ লাখ ৪৫ হাজার ৯শ’ ৬৭ জন। ৭৯টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৫৪টি ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে ইতোমধ্যে সকল ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। গতকাল রাত থেকে পৌর এলাকাগুলোতে বিজিবি ও র‌্যাবের সমন্বয়ে যৌথ বাহিনী টহল দিয়েছে । ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রেগুলোতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পর্যাপ্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়েন থাকবে। ভোটাররা যাতে ভোটদিয়ে নিরাপদে বাড়ী ফিরে যেতে পারে সে জন্য পর্যাপ্ত পরিমান আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন থাকবে,জানিয়েছেন জেলা রির্টানিং কর্মকর্তা।

জেলার ৫টি পৌরসভার জন্য ২৬ জন ম্যাজিস্ট্রেট, ৫ প্লাটুন বিজিবি,৭০ জনের র‌্যাবের একটি টিম,৯শ”৪৮ জন আনসার,এপিপি ও পিসির”১শ”৫৮ জনের একটি দল,এছাড়া ১ হাজার পুলিশ বাহিনীর সদস্য নিয়জিত থাকবেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় । ৫জন ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে প্রতিটি পৌরসভায় বিজিবির ৩টি ও র‌্যাবের ২টি করে ৫ পৌরসভায় মোট ২৫টি মোবাইল টিম থাকছে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে। পুলিশের থাকছে ১৯টি মোবাইল টিম। প্রতিটি কেন্দ্রে ১জন পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে ১৯ জনের একটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দল থাকবে।

চাঁদপুরের পাঁচ পৌরসভার মধ্যে হাজীগঞ্জ পৌরসভায় মেয়র পদে ৬, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪২ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১৪ জন; ফরিদগঞ্জ পৌরসভায় মেয়র পদে ৪, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৫৪ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৯জন; কচুয়ায় মেয়র পদে ৫, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩১ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৯ জন; মতলব পৌরসভায় মেয়র পদে ৩, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৮ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১০ জন এবং ছেঙ্গারচর পৌরসভায় মেয়র পদে ১, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৪ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১০ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এদিকে ছেঙ্গারচর পৌরসভায় মেয়র পদে বিএনপি প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ কি অবৈধ তা আদালতে ঝুলে যাওয়ায় এ পৌরসভায় মেয়র পদে ভোট হচ্ছে না। একমাত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগের রফিকুল আলম জর্জকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা না করার বিষয় নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা কমিশনের নির্দেশনার অপেক্ষায় আছেন বলে জানা গেছে।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts