September 22, 2018

চলতি বছর চাঁদপুর জেলায় উপবৃত্তি পাচ্ছে ২ লাখ প্রাথমিক শিক্ষার্থী

এ কে আজাদ,
চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ
চাঁদপুরের ৮ উপজেলায় চলতি শিক্ষাবর্ষে ১ লাখ ৯৬ হাজার ৭ শ’৯০ জন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবছর উপবৃত্তি পাবে। জেলার ১ হাজার ২৭ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মোট ৩ লাখ ৮৪ হাজার ৩শ’ শিক্ষার্থী রয়েছে।

সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী চাঁদপুরে শতভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উপবৃত্তির আওতায় আসলেও শতভাগ শিক্ষার্থী আসছে না। শর্ত পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় এসব শিক্ষার্থীদেরকে উপবৃত্তির আওতায় আনা যায়নি বলে জানিয়েছে শিক্ষা অফিস।

শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে ক্লাসে বেশি অনুপস্থিত ও পরীক্ষায় শর্ত অনুযায়ী নাম্বার না পাওয়া ইত্যাদি।

গণশিক্ষা ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক হতে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত অধ্যয়নরত শতভাগ শিক্ষার্থীরাই প্রাথমিক শিক্ষাবৃত্তির অন্তর্ভুক্তি হওয়ার নির্দেশনা রয়েছে।

চাঁদপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি শিক্ষাবর্ষে একজন প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার্থী প্রতি মাসে ৫০ টাকা, একই পরিবারের একজন হলে মাসে ১ শ’ টাকা, ২ জন হলে ২ শ’ টাকা, ৩ জন হলে ২শ’৫০ টাকা এবং ৪ জন হলে মাসে ৩ শ’টাকা করে বছরে ৪ কিস্তিতে সরাসরি ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে ওই উপবৃত্তির টাকা প্রদান করার কথা রয়েছে।

চলতি ২০১৬ শিক্ষাবর্ষের প্রয়োজনীয় বরাদ্দ ইতোমধ্যেই এসে গেছে বলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস জানিয়েছে।

শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, চাঁদপুর জেলায় ১ হাজার ২৭ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ উপবৃত্তির আওতায় থাকবে।

এর মধ্যে চাঁদপুর সদরে ২৮হাজার ৪৭, হাইমচরে ১১ হাজার ৮শ’ ৬১, হাজীগঞ্জে ২৫ হাজার ৪শ’ ৮৯, ফরিদগঞ্জে ৩৮ হাজার ১শ’ ৫৫, মতলব উত্তরে ২৮ হাজার ৯শ’ ৭৪, মতলব দক্ষিণে ১৪ হাজার ৩শ’ ৪, শাহরাস্তিতে ১৫ হাজার ৮শ’৬৮ এবং কচুয়ায় ৩৪ হাজার ৯২ শিক্ষার্থী চলতি অর্থবছরে এ উপবৃত্তি পাবে।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৪ সালে সর্বপ্রথম শিক্ষার বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচি চালু করেন সরকার । তখন দরিদ্র শিক্ষার্থীদের চাল দেয়ার ব্যবস্থা ছিলো।

নানা অনিয়মের কারণে ওই পদ্ধতির পরিবর্তে ১৯৯৯-২০০০ অর্থবছরে সরকার ৪০% শিক্ষার্থীকে মাসিক ২০ টাকা করে প্রাথমিক শিক্ষা উপবৃত্তি চালু করেন। পরবর্তীতে সরকার মাসিক ১শ’ টাকা হারে এবং একাধিক হলে ১শ’ ২৫ টাকা করে প্রাথমিক শিক্ষা উপবৃত্তি কার্যক্রম অব্যাহত রাখে।

বর্তমান সরকার ২০১৪-২০১৫ অর্থবছরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া শতভাগ শিক্ষার্থীর উপবৃত্তির প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। সব উপবৃত্তির কার্যক্রম মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে দেয়ার নির্দেশ রয়েছে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts