September 21, 2018

ঘরের কাজ করা কি পুরুষদের উচিত?

অনেক পুরুষই আছেন যাঁরা মনে করেন, ঘরের কাজ শুধু নারীদের জন্যই! এই প্রথা সেই আদিকাল থেকেই চলে আসছে। কিছু পুরুষ এই ধ্যান-ধারণা থেকে বেরিয়ে আসছেন ঠিকই। কিন্তু পরিবার, সমাজের অজুহাত দেখিয়ে নারীর কাঁধেই ঘরের সব কাজ চাপিয়ে দেওয়া হয়। পুরুষদের মধ্যেও সামাজিকভাবে সমালোচিত হওয়ার ভয় থাকে। ঘরের কাজ করলে মানুষ কী বলবে!

ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জ্যাকুলিন স্কট ও তাঁর দল ৩৪টি দেশের ৩০ হাজার মানুষের ওপর এ সংক্রান্ত একটি জরিপ পরিচালনা করেছে। ব্রিটিশ পত্রিকা ডেইলি মেইলের অনলাইন সংস্করণে জরিপের ফলাফল নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।

গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে, যেসব পুরুষ ঘরের কাজে তাদের স্ত্রীদের সাহায্য করে তারা অনেক বেশি রোমান্টিক হয় এবং তাদের দাম্পত্য জীবন সুখের হয়! জরিপে আরো দেখা গেছে, আজকাল ঘরের কাজ করতে চায় না এমন মনমানসিকতার পুরুষদের সংখ্যা দিন দিন কমছে। এর একটা প্রধান কারণ হতে পারে চাকরি!

যেসব ঘরে স্বামী-স্ত্রী দুজনই চাকরি করে তারা ঘরে ফিরে একে অন্যের কাজ ভাগাভাগি করে নেয়। বিশেষ করে পুরুষরা সাংসারিক কাজে আগের চেয়ে অনেক বেশি সাহায্য করছে। পুরুষরা সচরাচর রান্না করা, বাসন পরিষ্কার বা কাপড় ধোঁয়া একেবারেই পছ্ন্দ করে না। কিন্তু তারাই এই ধরনের কাজ করতে আগ্রহী হয় যারা দাম্পত্য জীবনে সুখী হতে চায়।

শহুরে জীবনে নারী-পুরুষ উভয়কেই কাজ করতে হয়। যদি তারা স্বচ্ছল জীবনযাপন করতে চায়। এ ক্ষেত্রে নারীরা অর্থনৈতিকভাবে অনেকটা স্বাবলম্বী হয়ে থাকে। এ কারণে পুরুষরাও তাদের ওপর কাজ চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে না।

বরং তারা নারীদের কাজে অনেক বেশি সাহায্য করতে চায়। ঘরের কাজে সাহায্য করার মাধ্যমেই দাম্পত্য মনোমালিন্য এড়িয়ে চলা যায়। কারণ পুরুষরা যখন ঘরের কাজে সাহায্য করতে ক্রমাগত অনীহা প্রকাশ করে তখন নারীদের মধ্যেও এক ধরনের বিরক্তি চলে আসে।

দিন শেষে সঙ্গীর সাথে যদি ভালো কিছু সময় পার করতে চান এবং সংসারের অশান্তি থেকে দূরে রাখতে চান তাহলে অবশ্যই স্ত্রীকে ঘরের কাজে সাহায্য করুন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts