November 17, 2018

ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০!

হবিগঞ্জের মাধবপুর পৌর এলাকায় খাস জমির দখল নিয়ে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের সংঘর্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটে।

খরব পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থালে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে প্রতিবাদ মিছিল করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি মাধবপুর বাজারে এক খণ্ড খাস জমি আওয়ামী লীগ-সমর্থিত বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের মাধবপুর শাখার সহসভাপতি জাবেদ ফকিরের নেতৃত্বে দখল করা হয়।
বুধবার সন্ধ্যায় মাধবপুর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ফারুক পাঠানের নেতৃত্বে একদল নেতাকর্মী সেখানে গিয়ে জমি দখল করার চেষ্টা করে।

এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের একপর্যায়ে ফারুক পাঠান মাধবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এরশাদ আলীকে মারধর করে। তখন এরশাদ আলীর লোকজনও জাবেদ ফকিরের পক্ষ নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

এতে এরশাদ আলী ছাড়া উসমান মিয়া, মনির মিয়া, জাবেদ ফকির, মাধবপুর পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি উজ্জ্বল পাঠানের বাবা দারু পাঠান, শাহ আলম, কবির ভূইয়াসহ ২০ জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। দারু পাঠানের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাই তাকে ঢাকায় পাঠাতে পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

হবিগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার মাসুদুর রহমান মনির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘মাধবপুর বাজারের এক খণ্ড খাস জমি দখলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।’

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/মেহেদি/ডেরি

Related posts