November 21, 2018

গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীর আনন্দিবেনের পদত্যাগ

দিল্লিঃ ভারতে অব্যবস্থাপনার অভিযোগের মুখে ইস্তেফার ঘোষণা দিয়েছেন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী আনন্দিবেন প্যাটেল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে এ ঘোষণা দেন তিনি।

এনডিটিভি’র খবরে বলা হয়, তার দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ইস্তেফার প্রস্তাব গ্রহণ করেছে। আগামীকাল নতুন মুখ্যমন্ত্রীর নাম ঘোষণা করা হতে পারে।

গুজরাটের বর্তমান স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিতিনভাই প্যাটেল নতুন মুখ্যমন্ত্রী হতে পারেন বলে জোর গুঞ্জন রয়েছে। সম্প্রতি দলের ভেতর থেকেই আনন্দিবেনের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। মে মাসে এনডিটিভি’কে বিজেপির কয়েকজন নেতা বলেছিলেন, আনন্দিবেনের কারণে গুজরাটে বিজেপি’র জনপ্রিয়তা হ্রাস পাচ্ছে। গত এক দশকের বেশি সময় ধরে গুজরাটের ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি।

ফেইসবুকে আনন্দিবেন বলেন, দুই মাস পর তার বয়স ৭৫ হবে এবং তরুণদের সুযোগ দেওয়ার জন্য বয়োজ্যেষ্ঠ নেতাদের অবসর নেওয়ার যে নীতি বিজেপি মেনে চলে তিনি সেটিকে সম্মান করেন। গত মাসে হিমাচল প্রদেশের উনা জেলায় গরুর চামড়া ছাড়ানোর চেষ্টা করার সময় ‘গোরক্ষক’ কমিটির লোকজন দলিত সম্প্রদায়ের চার ব্যক্তিকে গাড়ির সঙ্গে বেঁধে টানতে টানতে নিয়ে যায় এবং তাদের উপর অকথ্য নির্যাতন চালায়।

আর ওই নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে গুজরাটে দলিত সম্প্রদায়ের লোকজন বিক্ষোভ শুরু করে। তাদের দাবি, ওই চার ব্যক্তি গোহত্যা করেনি। তারা মৃত গরুর দেহ থেকে শুধু চামড়া ছাড়ানোর চেষ্টা করেছিল। এ নিয়ে সংসদেও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছিল। অপরদিকে গুজরাটে শিক্ষা ক্ষেত্র ও সরকারি চাকরিতে প্যাটেল সম্প্রদায়কে আরও সুযোগ দেওয়ার দাবিতে ২২ বছর বয়সী যুবক হারদিক প্যাটেলের আন্দোলনও ঠিকঠাক মত সামাল না দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে আনন্দিবেনের বিরুদ্ধে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী হন আনন্দিবেন।

Related posts