November 21, 2018

গান্ধীর নাতি মোদি ভক্ত তাই থাকছেন বৃদ্ধাশ্রমে

দিল্লিঃ  গান্ধী পরিবারের নেতৃত্বাধীন ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল কংগ্রেস ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ক্ষমতাসীন বিজেপির প্রধান রাজনৈতিক শত্রু। অথচ মহাত্মা গান্ধীর নাতী কানুভাই গান্ধী নিজেকে দীর্ঘদিন ধরে নরেন্দ্র মোদির একজন ভক্ত হিসেবে দাবি করেছেন। বৃদ্ধ বয়সে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফিরে স্ত্রী নিয়ে দিল্লির একটি বৃদ্ধাশ্রমে আশ্রয় নিয়েছেন কানুভাই।

১৭ বছর বয়সে ভারত ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে ভর্তি হন কানুভাই। পরে তিনি নাসার ল্যাংলি রিসার্চ সেন্টারে চাকরি করেন। তার স্ত্রী বায়োকেমিস্ট্রিতে একজন পিএইচডি ডিগ্রিধারী। দীর্ঘ চার দশক যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানের পর ৮৭ বছর বয়সী কানুভাই ও তার স্ত্রী ড, শিভা লক্ষ্মী গান্ধী (৮৫) ২০১৪ সালে ভারতে ফিরে আসেন। ৮ মে দিল্লির ওই বৃদ্ধাশ্রমে আশ্রয় নেওয়ার আগে তারা প্রায় দেড় বছর গুজরাটের বিভিন্ন আশ্রমে দিন কাটান।

সম্প্রতি কানুভাইকে দেখতে ভারতের সংস্কৃতিমন্ত্রী মহেশ শর্মা বৃদ্ধাশ্রমে যান। তিনিই মোদির সঙ্গে কানুভাইয়ের ফোনে কথা বলার সুযোগ করে দেন। কানুভাই জানান, খুব আনন্দময় আলোচনা হয়েছে।বার্তা সংস্থা এএনআইকে কানুভাই বলেন, প্রধানমন্ত্রীর অনেক পুরনো একজন ভক্ত আমি। এখনও তিনি মনে রেখেছেন আমি কিভাবে তাকে সহযোগিতা করেছিলাম। ওই সময় কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী আমাদের দুজনের বিরুদ্ধে ছিলেন।

টেলিফোনে আলাপের পর নরন্দ্রে মোদি কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন যাতে করে কানুভাই ও তার স্ত্রী ভালোভাবে বৃদ্ধাশ্রমে থাকতে পারেন।

কানুভাই বর্তমানে দক্ষিণ দিল্লির গৌতমপুরিতে গুরু বিশ্রাম বৃদ্ধাশ্রমে অবস্থান করছেন। দাদা মহাত্মা গান্ধীর মতো অন্য মানুষের সহযোগিতা করতে না পারার আক্ষেপ রয়েছে কানুভাইয়ের। তিনি বলেন, আমার খুব খারাপ লাগছে যে আমাকে সরকারের সহযোগিতা নিয়ে বেঁচে থাকতে হচ্ছে।

সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

Related posts