September 22, 2018

গাজীপুরে জঙ্গি হামলা মোকাবেলায় তৎপর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী

ফাইল ছবি

ঢাকাঃ  গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) ডাকযোগে জঙ্গিদের হুমকিবার্তা পাঠানোর পর বিশেষ তৎপর হয়ে উঠেছে গাজীপুর জেলা প্রশাসন। সেই সঙ্গে জঙ্গি হামলা মোকাবেলায় সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

শুক্রবার গাজীপুর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এর আগে বৃহস্পতিবার গাজীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী কমিটির সভায় সম্প্রতি দেশের বিভিন্নস্থানে জঙ্গি হামলার নিন্দা জানানো হয়।

সভায় আরো জানানো হয়, কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে। পাশাপাশি সবাইকে নিজের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে চলাফেরা করার অনুরোধ জানানো হয়।

প্রসঙ্গত, ২০০৫ সালের ২৯ নভেম্বর গাজীপুর জেলা আইনজীবী সমিতির দুই নম্বর হলে ঢুকে বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি)। আত্মঘাতী এ হামলায় ১৩ জন আইনজীবী ও কয়েকজন সাধারণ মানুষ নিহত হন। এ ঘটনায় সাংবাদিকসহ অনেকে আহত হন। এ বোমা হামলার ঘটনার পর জেলার সাধারণ মানুষের মাঝে সবসময় একটা আতঙ্ক কাজ করে। এরই মধ্যে দেশে জঙ্গি হামলা এবং গাজীপুরে জঙ্গিদের নতুন করে হামলার হুমকি স্থানীয়দের উদ্বিগ্ন করে তুলেছে।

এ ব্যাপারে সংসদ সদস্য জাহিদ আহসান রাসেল জানান, কোনো অবস্থানেই জঙ্গিরা যেন গাজীপুরে অবস্থান নিতে না পারে সে বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। অপরিচিত ও সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের ব্যাপারে বিশেষ করে স্থানীয় বাড়ির মালিকদের আরো সতর্ক হতে হবে। জঙ্গি প্রতিরোধে প্রতিটি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে কমিটি গঠন করার অনুরোধ জানান তিনি।

গাজীপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক জামিল আহমেদ জানান, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করছে প্রশাসন। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স হয়েছে। তিনি এ বিষয়ে দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। জেলার সার্বিক বিষয়গুলো গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। জঙ্গিবিরোধী সচেতনতামূলক অনেক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

শনিবার জেলা সদরের বঙ্গতাজ অডিটরিয়ামে সন্ত্রাস, নাশকতা ও জঙ্গিবাদবিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

এ বিষয়ে গাজীপুর পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ জানান, প্রশাসন সব শক্তি দিয়ে জেলার মানুষকে নিরাপত্তা দিতে প্রস্তুত রয়েছে। জেলার গুরুত্বপূর্ণ সব স্থাপনা, অফিস, আদালত, জনবহুল স্থান, ট্রেন ও বাসস্টেশন, বিপণি বিতান, মসজিদ, মন্দির, গির্জা, পেগোডাসহ সব উপসানালয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে।

Related posts