November 21, 2018

ক্ষতি হলেও সরবে না রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র – অর্থমন্ত্রী

ঢাকাঃ সুন্দরবনের কাছে রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কারণে পরিবেশের উপর নেতিবাচক কিছু প্রভাব পড়লেও প্রকল্পটি না সরানোর পক্ষেই সরকার অটল থাকবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

সোমবার বিশ্ব ব্যাংকের পরিবেশ ও প্রাকৃতিক সম্পদ বিষয়ক জ্যেষ্ঠ পরিচালক পলা ক্যাবালেরো নেতত্বাধীন একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, “দ্যাট উড বি সাম ইমপ্যাক্ট, অবভিয়াসলি (অবশ্যই কিছু প্রভাব পড়বে)। এত নৌকা আসবে, ক্যারিং সো মাচ কোল; এই নৌকা আসার ফলেই তো ফ্লোরা-ফনা ভেরি সাবস্টেনশিয়ালি অ্যাফেক্টেড হবে।”

রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের জন্য হুমকি হবে দাবি করে তার বিরোধিতা করে আসছে পরিবেশবাদীরাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। তবে ক্ষতির সম্ভাবনা নাকচ করে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ক্ষতি যতটুকু সম্ভব কমিয়েই এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, “রামপাল নিয়ে আমাদের জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের বক্তব্য হল, তারা একটা ভালো পরিবেশগত সমীক্ষা করেছে। সেখানে খুব বেশি ইমপ্যাক্ট হবে না বলে দেখা গেছে।’”

এই বিদ্যুৎকেন্দ্রটি সরিয়ে অন্য কোথাও করা যায় কি না- সাংবাদিকদের এই প্রশ্নে তিনি বলেন, এর কোনো সম্ভাবনা নেই।

খুলনা-ভোলা-পটুয়াখালীর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দ্বীপগুলো খতিয়ে দেখে ভবিষ্যতে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র করা যেতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সুন্দরবন সম্পর্কে জানতে চাইলে এক পর্যায়ে মন্ত্রী বলেন, “সুন্দরী গাছ আমরা খুব কেটে ফেলতেছি। তার ফলে সুন্দরবন ব্যাপক এলাকা বন থেকে আলাদা হয়ে যাবে। এটা আমাদের জন্য ভালো না।

Related posts