September 22, 2018

‘ক্যান্টনমেন্ট’ আইনের আওতায় আনার প্রস্তাবঃ ৩ বাহিনীর আপত্তি


দেশের ক্যান্টনমেন্টগুলোকে আইনের আওতায় নেয়ার প্রস্তাব উঠেছে মন্ত্রিসভায়। তবে এই প্রস্তাবে আপত্তি জানিয়েছে তিন বাহিনী। একারণে আরো যাচাই-বাছাই ও তিন বাহিনীর মতামতসহ উপস্থাপন করার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের সভাকক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়।
বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ১৯২৪ সালের ক্যান্টনমেন্ট অ্যাক্ট দিয়ে এতদিন বাংলাদেশের সেনানিবাসগুলো পরিচালিত হয়ে আসছিল।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সেনানিবাসগুলো পরিচালনার জন্য আইনি কাঠামোর ভেতরে আনার জন্য আজ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় মন্ত্রিসভায় ‘সেনানিবাস আইন, ২০১৬’-এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদনের জন্য উত্থাপন করে।

মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, তবে মন্ত্রিসভা প্রস্তাবটি অনুমোদন না করে তা আরো যাচাই-বাছাইয়ের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে ফেরত পাঠিয়ে দেয়। এই প্রস্তাবের বিষয়ে আমি এর চেয়ে বেশি আর কিছু বলতে পারছি না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, যেহেতু প্রস্তাবিত আইনের খসড়ায় তিন বাহিনীর মতামত যুক্ত হয়নি তাই আরো যাচাই-বাছাইয়ের জন্য প্রধানমন্ত্রী পরামর্শক্রমে প্রস্তাবটি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে ফেরত পাঠানো হয়।

Related posts