November 18, 2018

কোরবানীর ঈদ আসছে চামড়া শিল্প দংশের দারপান্ডে রপ্তনি কি হবে?

রবিউল আলমঃ কোরবানী আসে কোরবানী যায় প্রতিবারের নেয়, এবার ও কোরবানী আসবে, ত্যগের মহিমা নিয়ে, গরিব দুঃখী মানুষ চেয়ে আছে একটু মাংসের আশায়, এতিম খানা, লিল্লাহ বোডিং, মিসকিন, দেশের অসহায়, মানুষ গুলো চেয়ে আছে কোরবানী গরু, ছাগলের চামড়া বিক্রীর টাকার আশায়, ট্যানারীর মালিক, মাংস শ্রমিকরা চেয়ে আছে অতি মুনাফার আশায়। ব্যাংক, ব্যানিজ্য মন্ত্রনালয়, রপ্তানী উন্নয়ন বুরু প্রস্ততি নিচ্ছে দেশের তিন নাম্বার রপ্তানী ক্ষাত চাড়মা শিল্প রক্ষায়। সংবাদ মাধ্যম প্রস্তত চামড়া নিয়ে টানাটানি, মাস্তানী, সিন্ডিকেট, পাচার কারীদের মুখোস উমচিত ও প্রতিরোদ আশায়।

সংবাদ কর্মিরা নিজেদের আরাম হারাম করে ঈদের আনন্দ বির্শ্বজন দিয়ে, দেশ ও জাতির সার্থে অন্নায় অবিচারের চিত্র গুলো জনসম্মুখে তুলে দরবেন। এবছর ও তাদের দায়িত্ব যথাযত পালন করবেন,আমার কোন স্বাদ নাই। এই চিরা চরিত্র প্রচার দিয়ে, লেখা লেখি করে আমার কি চামড়ার রপ্তানী কারক ট্যানারীর মালিককে দেশের প্রতি, জাতির প্রতি তাদের দ্বায়িত্ব বোদ জাগ্রত করতে পেরেছি এ প্রশ্ন আজ জনমনে। সরকার চামড়া শিল্প উন্নয়নে হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে হেমায়েত পুর চামড়া শিল্প নগরী গড়ে তুলেছে। ২৮, বার নোটিশ দিয়ে, হাইকোর্ট জরিমানা করে, তাদের কে দেশ প্রেম জাগ্রত করতে পারছেন না, শুধু ব্যবসায়ী দিক থেকে তারা অভিচল, সরকার ও জনগন কে জিম্মি করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।

জনগনের অর্থ রাষ্টিয় সম্পতি ব্যাংক থেকে শত, শত কোটি টাকা ঋন নিয়ে, চামড়া ব্যপাড়ী, মাংস ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকার চামড়া বাকী নিয়ে তারা শিল্প প্রতি হয়েছেন, এখন শিল্প রক্ষার দ্বায়িত্ব নিতে হবে সরকার কে, মালিকরা শুধু শিল্প প্রতি হয়েছেন যেখানে ইচ্ছা চামড়ার পচা গলা ফেলবেন পরিবেশের বারটা বাজাবেন, আধুনিক শিল্পের ক্ষতি পূরণের টাকা নিবেন,ইচ্ছে মত বিদেশ ভ্রমন করবেন,আইন,জনগন, সরকার তাদের কে কিছু করতে পারবেনা। এ শত্য আর কেউ জানুক আর নাই জানুক ট্যানারীর মালিকরা জানেন, ট্যানারীর ব্যবসা আসার আগে যে কয়টা টাকা বিনিয়োগ করছেন সেই টাকা সরকার ও জনসাধারন কে বুকা বানিয়ে বিদেশে পাচার ও অন্যন্য ব্যবসায় অন্নের নাম তুলে নিয়েছেন। এখন সরকার ট্যানারীর পচা ডোলা ও বাতিল মেশেনারীজ নিয়ে ট্যানরীর মালিকদের ঋন মুক্তি দিলে ক্ষতি কি। এ আশা অনেক শিল্প মালিকের।

এই কোরবানী ও তারা হাজারী বাগ, পোস্তা লালবাগে যানজট সৃষ্টি করে, বানিজ্য মন্ত্রনালয় অনুমতি নিয়ে, নিজের চামড়ার দাম নিধারন করবেন প্রশ্ন হচ্ছে ট্যানারীর মালিকদের সংগঠন একক ভাবে চামড়ার দাম নির্ধারন করার বৈধতা রাখে কি না? এতিমের হক রাষ্টিয় সম্পদ লুটে নেওয়ার অনেক কৌশল জানা আছে তাদের, হাইকোট আর কত টাকা জরিমানা করবে, আমরা চেয়ে চেয়ে দেখবো ওদের কি জানা আছে তাদের, হাইকোট আর কত টাকা জরিমানা করবে, আমরা চেয়ে চেয়ে দেখবো ওদের কিছু করা যাবেনা ভাব খানা এমন। আগামী ১০, আগষ্ট মন্ত্রনালয় সভায় আমি আমন্ত্রন গেয়েছি, জানিনা দেশ ও জাতির স্বার্থে কিছু বলতে পারবো কিনা, তবু আশা নিয়ে অংশ গ্রহন করবো।

Related posts