November 20, 2018

কে আগে ফাইনালে,মাশরাফি না সাকিব?

মাশরাফি না সাকিব?

সবার আগে মাশরাফি বিন মর্তুজার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স বিপিএলের শেষ চারে খেলা নিশ্চিত করেছিল। এরপর সাকিবের রংপুর রাইডার্স। এবার সবার আগে ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়েও মুখোমুখি মাশরাফি-সাকিব। কে প্রথম নিশ্চিত করবে ফাইনালের মঞ্চ? এই প্রশ্নের উত্তরের অপেক্ষায় এখন ক্রিকেট ভক্ত-প্রেমীরা।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আদলে বিপিএলের নিয়ম চালু হওয়ায় কুমিল্লা ও রংপুর দুটি দলই ফাইনালে উঠার দুটি করে সুযোগ পাচ্ছে। পয়েন্টের হিসাব নিয়ে মাতামাতি এখন শেষ, এখন ফাইনালে ওঠার অপেক্ষা। বাংলাদেশ দলের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের অধিনায়ক এবং সহ-অধিনায়কের লড়াইটা এবার ফাইনালে ওঠার।

বিপিএলের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে শনিবার কুমিল্লা ও রংপুর মুখোমুখি হবে। যারা জিতবে তারাই চলে যাবে সরাসরি ফাইনালে। আর হারা দলের জন্যও থাকছে আরো একটি সুযোগ। শনিবার সন্ধ্যায় দ্বিতীয় ম্যাচে এলিমেনিটর পর্বে জয়ী দলের সঙ্গে রোববার মুখোমুখি হবে প্রথম কোয়ালিফায়ারে হারা দলটি। কুমিল্লা ও রংপুরের ম্যাচটি শুরু হবে শনিবার দুপুর ২টায়। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বিটিভি এবং চ্যানেল নাইন।

চলমান বিপিএলে মাশরাফি ও সাকিবের লড়াইটা গ্রুপ পর্বে হয়েছে সমান সমান। কুমিল্লা প্রথম ম্যাচে নয় উইকেটে বড় ব্যবধানে জিতেছিল। দ্বিতীয় মুখোমুখিতে রংপুর জয় পায় ২১ রানে। তবে প্রথম মুখোমুখিতে নিষেধাজ্ঞার কারণে খেলতে পারেননি সাকিব। ফিরতি পর্বে সাকিবই জিতেছিল মাশরাফির সঙ্গে।

বৃহস্পতিবার ম্যাচ খেলেছে মাশরাফির কুমিল্লা। তাই শুক্রবার অনুশীলন করেনি মাশরাফির দল। রংপুরের আগেরদিন কোনো ম্যাচ ছিল না। দুদিন বিশ্রাম পেয়েছে তারা। শুক্রবার সকালেই শেষ প্রস্তুতি সেরেছে রংপুর রাইডার্স। কাগজে-কলমে শক্তির বিচারে আগে থেকেই এগিয়ে ছিল তারা। ফাইনালের আগে একধাপ এগিয়ে থাকছেন সাকিব- ড্যারেন সামিরা।

মাশরাফির কুমিল্লা শিবিরে যখন ইনজুরিতে জর্জরিত, সেই সময় পূর্ণ শক্তির দলে টগবগে রংপুর। বোলিং আক্রমণে স্পিনের উপর নির্ভরশীল। সাকিব, আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবী ও আরাফাত সানিই শুরুর আক্রমণের অন্যতম হাতিয়ার। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের দলে অলরাউন্ডার দিয়ে ভরা। যারা মূল বোলার তাদের সবাই ব্যাটিংয়ে কিছু অবদান রাখার ক্ষমতা রাখেন। পেস বোলিং থিসারা পেরেরা, ড্যারেন সামি ও ওয়াহাব রিয়াজরা আছেন। তবে ফাইনালের আগে রংপুরের ভয় ওপেনিং নিয়ে।

জাতীয় দলের বাঁহাতি ওপেনার সৌম্য সরকার ও অভিজ্ঞ লেন্ডেল সিমন্স সুবিধা করতে পারছেন না। সৌম্য শুরুটা ভালো করে এগোতে পারছেন না। তবে মিডল অর্ডার ও লেট অর্ডারে ইনিংস ধরে খেলা ও দ্রুত রান তোলার মতো ব্যাটসম্যানরা রয়েছেন। প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচ নিয়ে ড্যারেন সামি বলেন, ‘রংপুর এখনো তাদের সেরা ক্রিকেট খেলেনি। শনিবার আমাদের সামনে সেটা করে দেখানোর সুযোগ এসেছে। ফাইনালে যাওয়ার জন্য সেটাই আমরা করবো।’

এদিকে কুমিল্লা ভাঙা দল নিয়েই পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে থেকে লিগ পর্ব শেষ করেছে। শেষদিকে এই দলটা আরো বাজে অবস্থায়। মাশরাফি ইনুজুরি নিয়েই মাঠে নামছেন, বোলিং করতে পারছেন না। শুধু দলকে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য তিনি একাদশে থাকছেন। দলের প্রধান পেসার নুয়ান কুলাসেকারা, কামরুল ইসলাম রাব্বি, ডলার মাহমুদ, অলোক কাপালি ও শোয়েব মালিক সবাই ছোট-খাটো ইনজুরি সমস্যায় আছেন।

এছাড়া শনিবার খেলার পর আন্দ্রে রাসেলেরও ফিরে যাওয়ার কথা। তবু এমন দল নিয়েও মাশরাফির নেতৃত্বে দুর্দান্ত খেলেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। পাকিস্তানি ডানহাতি ওপেনার আহমেদ শেহজাদ দারুণ ফর্মে রয়েছেন। বাংলাদেশ জাতীয় দলের বাঁহাতি ওপেনার ইমরুল কায়েসও প্রত্যেক ম্যাচে কিছু রান করছেন। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে যে আজহার জায়েদিকে নিয়ে কোনো পরিকল্পনাই করেনি দলটি, তিনিই দারুণ সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছেন।

গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ শেষে (বৃহস্পতিবার) কুমিল্লার অধিনায়ক মাশরাফি বলেছিলেন, ‘এই দল নিয়ে আমরা এই পর্যন্ত আসতে পারবো এটাই তো ভাবতে পারেনি কেউ। এখন সামনে আমাদের প্রতিপক্ষ কে তা নিয়ে মোটেও আমরা ভাবছি না। আমরা যেভাবে খেলেছি সেভাবে খেলতে পারলেই হবে।’

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts