September 23, 2018

কেন বোলিং করছেন না মাশরাফি?

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক মাশরাফি

স্পোর্টস ডেস্কঃ ঢাকা ডাইনামাইটসের বিপক্ষে মাঠে নামার জন্য স্বাভাবিক যে প্রস্তুতি প্রয়োজন, তার কিছুই নেননি তিনি। ঝুঁকিটা আগের ম্যাচেই নিয়েছিলেন মাশরাফি। প্রস্তুতি বলতে, ম্যাচ শুরুর আগে ৩০-৪০ মিনিট ধরে দুই পায়ে টেপ মোড়ানো এবং এরপর নি-ক্যাপ পরা। তবেই বোলিং করতে পারেন মাশরাফি। গত সাত-আট বছর এটাই মাশরালির নিয়মিত অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। তবে ঢাকা ডাইনামাইটসের বিপক্ষে তার বোলিং করার কথা ছিল না। এ কারণে প্রস্তুতি ছাড়াই মাঠে নামেন তিনি। কিন্তু কলার বোনের চোটের কারণে বিপিএল থেকে ছিটকে পড়া ডলার মাহমুদ না থাকার কারণে প্রস্তুতি ছাড়াই পুরো চার ওভার বোলিং করেন মাশরাফি। ফিল্ডিংয়েও ছিলেন দারুন সিরিয়াস।

ফিল্ডিং করতে গিয়ে পড়েছেন চোটে। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের কারণে আজ চিটাগাং ভাইকিংসের বিপক্ষে খেলতে পারবেন কি না তা নিয়েও ছিলেন যথেষ্ট সন্দিহান। তবে কুমিল্লার ভাগ্য ভালো, চোটটা তত গুরুতর ছিল না। ফলে মাঠে নামতে পারলেও, মাশরাফি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দিয়েছেন, বোলিং করতে পারবেন না তিনি এই ম্যাচে।

পরিস্থিতি দেখে কুমিল্লার মালিকপক্ষও মাশরাফিকে জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি শুধু অধিনায়ক হিসেবে দলে থাকতে পারলেই চলবে। বোলিং করার প্রয়োজন নেই। আগের ম্যাচেও মাশরাফি বোলিং করুক, তা চাননি মালিকপক্ষ। মাশরাফি নিজেই সেটা জানিয়েছিলেন। বলেছেন, ‘উনি (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের উপদেষ্টা আ হ ম মুস্তফা কামাল) আমাকে আগেই বলে দিয়েছেন, তুমি শুধু অধিনায়কত্ব করার জন্য খেল। বোলিং করা লাগবে না।’

এ কারণেই দেখা যাচ্ছে দলে থেকেও আজ বল হাতে নেননি মাশরাফি। শোয়েব মালিককে দিয়ে করিয়েছেন বোলিং ওপেন। এরপর নুয়ান কুলাসেকোরা, আবু হায়দার রনি, শুভাগত হোম এবং আসহার জাইদিকে দিয়ে বোলিং করাচ্ছেন তিনি; কিন্তু নিজে বল হাতে তুলে নিচ্ছেন না। শুধু তাই নয়, নিজের সুরক্ষার জন্য ফিল্ডিংয়েও দৌড়াচ্ছেন কম। কারণ, ডাক্তাররাই তাকে বলে দিয়েছে হঠাৎ দৌড়ানো যাবে না, দৌড়ালে হঠাৎ থেমে যাওয়া যাবে না। খুব সতর্ক থাকতে হবে। বাধ্য হয়ে মাশরাফিকেও মানতে হচ্ছে এসব বিধি-নিষেধ।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts