November 20, 2018

কী পরে বিয়ে, বিভ্রান্ত ৯৩ বছরের বধূ

aইউরোপ ::ইচ্ছাশক্তির জোরে বয়স যে কোনো ব্যাপারই নয়, তা প্রমাণ করে দেখালেন ৯৩ বছরের এক বৃদ্ধা। অবশ্য তাকে বৃদ্ধা বলা ভুল, বলা উচিত নববধূ। খুব শিগগিরই তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন। তারই তোড়জোড় করতে ব্যস্ত তিনি। ইতিমধ্যেই তিনি তার জন্য চারটি বিয়ের পোশাক কিনে ফেলেছেন। কিন্তু বিয়ের দিন কী পরবেন তা নিয়ে নিজেই বেশ বিভ্রান্ত তিনি। তবে ঘাবড়ে না গিয়ে, সোশ্যাল মিডিয়ার ওপরেই এই দায়িত্বটি ছেড়ে দিয়েছেন। চারটি পোশাক পরে নিজের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ২৮ মে দিয়েছেন তিনি। এই পোস্টে ৪ হাজারেরও বেশি প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে।
পোস্টে ছবির সঙ্গে লেখা রয়েছে, ‘‌৯৩ বছরের সিলভিয়া আমাদের দোকানে এসে নিজের জন্য চারটি বিয়ের পোশাক কিনেছেন। এ বছরের জুলাইয়ে ৮৮ বছরের ফ্র‌্যাঙ্কের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হবে। বিয়ের পরে তাঁরা অবসরপ্রাপ্তদের গ্রামে গিয়ে থাকবেন।’‌
পোস্টের মাধ্যমে জানা যায়, ফ্রাঙ্ক বহুবার সিলভিয়াকে বিয়ের জন্য প্রস্তাব দিয়েছিলেন, কিন্তু সিলভিয়া সেই প্রস্তাব এতদিন প্রত্যাখ্যান করেই আসছিলেন। সিলভিয়া মনে করতেন, ফ্র‌্যাঙ্ককে বিয়ে করলে তার মৃত স্বামীকে অশ্রদ্ধা করা হবে। কিন্তু তিনি যখন দেখলেন নিজের পদবি পরিবর্তন না করেও বিয়ে করা যায় তখন তিনি ফ্র‌্যাঙ্ককে বিয়ে করার জন্য রাজি হয়ে যান।
এর পরেই বিয়ের জন্য সিলভিয়া পোশাক কেনেন এবং ফেসবুক পোস্টের মধ্য দিয়ে সাহায্য চান। ফেসবুকে অনেকেই সিলভিয়ার পোস্টে মন্তব্য করেন এবং সিলভিয়া–ফ্র‌্যাঙ্ককে নতুন জীবনের জন্য অভিনন্দন জানান। একজন লিখেছেন, ‘‌যে পোশাক সিলভিয়াকে খুশি করবে সেটাই তাঁর পরা উচিত। চারটি পোশাকেই তো সিলভিয়াকে দারুণ লাগছে। অভিনন্দন জানাই সিলভিয়াকে।’‌ অন্য একজন লেখেন, ‘‌অভিনন্দন জানাই সিলভিয়া এবং ফ্র‌্যাঙ্ককে। প্রেমে পড়ার সত্যিই যে কোনো বয়স নেই, সেটা আপনারা প্রমাণ করলেন। সিলভিয়াকে বিয়ের দিন যে পোশাকে অপূর্ব লাগবে সেই পোশাকই তার পরা উচিত। আমার মতে এ বা সি পোশাকটি খুব সুন্দর। ভবিষ্যতের জন্য জানাই অভিনন্দন।’‌
ক্যানবেরা টাইমস সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, সিলভিয়া নিজের বিয়ের জন্য ‘‌সি’‌ বিভাগের পোশাকটি বেছে নিয়েছেন।

Related posts