March 23, 2019

কিপিংয়ে ধোনি-ম্যাককালামদের চেয়ে এগিয়ে মুশফিক!

174132_1স্পোর্টস ডেস্ক:- মুশফিক মানে গ্লাভস হাতেও নির্ভরতা। ছবি-ওয়েবসাইট।ব্যাট হাতে তিনি বাংলাদেশের বড় আস্থা তো বটেই, টেকনিকের দিক দিয়েও হয়তো দেশের সেরা। পারফরম্যান্স যত ভালোই হোক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমকে পাড়ি দিতে হবে আরও অনেক পথ। তবে একটা জায়গায় ইতিমধ্যে সর্বকালের সেরাদের তালিকায় নাম তুলে ফেলেছেন বাংলাদেশের এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। পরিসংখ্যানে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির চতুর্থ সেরা উইকেটকিপার তিনি, এখানে তাঁর পেছনে আছেন ব্রেন্ডন ম্যাককালাম কিংবা মহেন্দ্র সিং ধোনির মতো বড় তারকারাও।

২০০৬ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি অভিষেকের পর এখন পর্যন্ত ৪৩টি ম্যাচ খেলেছেন মুশফিক। ১৯টি ক্যাচ আর ২১টি স্টাম্পিংসহ তাঁর মোট ডিসমিসাল ৪০। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তাঁর চেয়ে বেশি ডিসমিসাল আছে শুধু পাকিস্তানের কামরান আকমল (৬০), ওয়েস্ট ইন্ডিজের দিনেশ রামদিন (৪৮) আর শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারার (৪৫)।

এই তালিকায় মুশফিক পেছনে ফেলেছেন ধোনি (৩৬), ম্যাককালাম (৩২) আর দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্সকেও (২৭)। এরা তিনজনই মুশফিকের চেয়ে খেলেছেন অনেক বেশি ম্যাচ।

৫৬ ম্যাচে ৪৫ ডিসমিসাল নিয়ে মুশফিকের ঠিক ওপরেই আছেন কুমার সাঙ্গাকারা। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে এরই মধ্যে অবসর নিয়ে ফেলেছেন সাবেক এই শ্রীলঙ্কান উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। মুশফিকের জন্য তাঁকে ছাড়িয়ে যাওয়া এখন স্রেফ সময়ের ব্যাপার। ৬০টি ডিসমিসাল নিয়ে সবার ওপরে কামরান আকমল। তবে পাকিস্তানি এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানও এখন দলে বেশ অনিয়মিত। সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। তরুণ মোহাম্মদ রিজওয়ানের কাছে হারানো জায়গাটা ফিরে পাওয়া মোটেই সহজ হবে না তাঁর জন্যও। মুশফিকের মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা তাই দ্বিতীয় স্থানে থাকা দিনেশ রামদিনের সঙ্গে। ৫২ ম্যাচে ৪৮ ডিসমিসাল নিয়ে এই মুহূর্তে ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান উইকেটকিপার কিছুটা এগিয়ে আছেন মুশফিকের চেয়ে। তবে ভবিষ্যতে যে দৃশ্যটা বদলাবে না, সেটা কে বলতে পারে!

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশি ডিসমিসাল

নাম ম্যাচ ইনিংস ডিসমিসাল ক্যাচ/স্টাম্পিং

কামরান আকমল (পাকিস্তান) ৫৪ ৫৩ ৬০ ২৮/৩২

দিনেশ রামদিন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ৫২ ৫২ ৪৮ ৩০/১৮

কুমার সাঙ্গাকারা (শ্রীলঙ্কা) ৫৬ ৫৬ ৪৫ ২৫/২০

মুশফিকুর রহিম (বাংলাদেশ) ৪৩ ৪২ ৪০ ১৯/২১

মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত) ৫২ ৫১ ৩৬ ২৫/১১

ব্রেন্ডন ম্যাককালাম (নিউজিল্যান্ড) ৭১ ৪২ ৩২ ২৪/৮

মোহাম্মদ শেহজাদ (আফগানিস্তান) ৩৬ ৩৫ ৩০ ১৯/১১

কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা) ২২ ২২ ২৭ ২০/৭

এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা) ৬৩ ২৪ ২৭ ২১/৬

ব্র্যাড হাডিন (অস্ট্রেলিয়া) ৩৪ ৩১ ২৩ ১৭/৬

Related posts