November 18, 2018

কালই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেতে পারত বার্সা!

স্পোর্টস ডেস্কঃ ন্যু ক্যাম্পে দারুণ খেলছে বার্সেলোনা, এর মধ্যেই মেসি-নেইমার-সুয়ারেজ গোল পেয়ে গেছেন। কিন্তু দর্শকদের চোখ মাঠের বদলে হাতের স্মার্টফোনে। সবার চোখে–মুখে খানিকটা স্নায়ুচাপ। কিন্তু দল তো জিতছে, তাহলে এত উদ্বেগ কিসের? রিয়াল মাদ্রিদ-ভ্যালেন্সিয়া ম্যাচে যে ওই সময় রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনা চলছে! আর সেটার সঙ্গে জড়িয়ে আছে বার্সারও ভাগ্য।

বার্নাব্যুর কথাটা চিন্তা করুন। শেষ ১০ মিনিট যেন অনন্তকাল মনে হচ্ছিল রিয়াল–সমর্থকদের কাছে। ৩-১ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর ৮১ মিনিটে আন্দ্রে গোমেজ আশা দেখাচ্ছিলেন ভ্যালেন্সিয়াকে। কিন্তু মিনিট দুয়েক পর রদ্রিগো লাল কার্ড দেখে বার্নাব্যুতে একটু স্বস্তির উপলক্ষ এনে দেন।

কিন্তু শেষ কয়েক মিনিটে ১০ জনের ভ্যালেন্সিয়াই কাঁপিয়ে দিয়েছিল রিয়ালকে। শেষ দিকে একটা ফ্রি কিকও পেয়েছিল ৩৫ গজ দূর থেকে, কিন্তু সেটি কাজে লাগাতে পারেনি। যোগ করা সময়ে রিয়ালের বক্সে ভ্যালেন্সিয়ার একের পর এক আক্রমণ। যেকোনো মুহূর্তে একটা গোল হয়ে গেলে এক ম্যাচ আগেই শেষ হয়ে যায় লা লিগার সব নাটক। স্নায়ুচাপ সামলে রিয়াল কোনো মতে সামলে রাখল নিজেদের রক্ষণ। টিকিয়ে রাখল এক গোলের লিড।

এই নাটকের সঙ্গে জড়িয়ে ছিল দিনের আরেকটি ম্যাচ। সেখানেও আরেক নাটক। তলানির দল লেভান্তের সঙ্গে ৮৯ মিনিট পর্যন্ত ১-১ গোলে সমতায় অ্যাটলেটিকো। নিষেধাজ্ঞার কারণে ডিয়েগো সিমিওনে ডাগআউটে নেই, গ্যালারিতে বারবার ধরা পড়ছিল তাঁর উদ্বিগ্ন মুখ। কী অবিশ্বাস্য, ৯০ মিনিটে জিউসসেপে রসি গোল করে লেভান্তেকে এগিয়ে দেন! ন্যু ক্যাম্পে তখন একটু স্বস্তির ছোঁয়া, যাক অ্যাটলেটিকো তো হারছে। তিনটা ম্যাচই চলছে একই সঙ্গে। সমীকরণ তখন এমন, অ্যাটলেটিকো হেরে যাওয়া মানে শিরোপার দৌড় থেকে ছিটকে যাওয়া। বার্সা তো অনায়াসেই জিতছে। এরই মধ্যে রিয়াল যদি শেষ পর্যন্ত ড্র করে, বার্সাই হয়ে যাবে চ্যাম্পিয়ন।

রিয়াল-ভ্যালেন্সিয়া ম্যাচের শেষ কয়েক মিনিট যেন হলো একেবারেই স্নায়ুক্ষয়ী। লিগ কি আজই শেষ, নাকি শেষ ম্যাচ পর্যন্ত চলবে নাটক! না, ভ্যালেন্সিয়া প্রাণপণ চেষ্টা করেও পারল না। শেষ পর্যন্ত ৩-২ গোলে জিতে রিয়ালই টিকে থাকল লড়াইয়ে। ​২-১ গোলে হেরে ছিটকে গেল অ্যাটলেটিকো। শেষ ম্যাচ জিতলেও তাদের লাভ হবে না এখন আর। শিরোপার লড়াইয়ে এখন কেবল দুটি দলই।
বার্সেলোনা নাকি রিয়াল—লা লিগার ট্রফি কার হাতে উঠছে সেটি জানার জন্য এখন শেষ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। দুই দলেরই খেলতে হবে প্রতিপক্ষের মাঠে গিয়ে। রিয়াল মুখোমুখি হবে দেপোর্তিভোর, বার্সার পরীক্ষা নেবে গ্রানাডা। ওই ম্যাচ দুইটিও শুরু হবে একই সময়ে। বার্সেলোনার পয়েন্ট এখন ৮৮, রিয়ালের ৮৭। শেষ ম্যাচে বার্সা যদি ড্রও করে, নিজেদের ম্যাচ জিতলে চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে রিয়াল। আর রিয়াল যদি ড্রও করে, বার্সা হেরে গেলেও হয়ে যাবে চ্যাম্পিয়ন। তখন দুই দলের পয়েন্ট সমান হলেও মুখোমুখি লড়াইয়ের হিসাবে চ্যাম্পিয়ন হবে বার্সা। এখনো তাই অনেক নাটক বাকি।

কে জানে, শেষ ম্যাচে হয়তো আরও কিছু স্নায়ুক্ষয়ী মুহূর্তের জন্ম দেবে!

Related posts