September 19, 2018

কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করল ৫ দেশ

27fb9_b6d2af8f95_long
ঢাকা: কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে সৌদি আরব, মিশর, বাহরাইন, ইয়েমেন এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত।

আরব লীগ দেশগুলোর অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ এবং সন্ত্রাসবাদ ঘটানোর অভিযোগ আনা হয় কাতারে ওপর। সেই সাথে মধ্যপ্রাচ্যর দেশগুলোর মধ্যে অস্থিরতা সৃষ্টি করায় সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এই চার দেশ।

এদিকে, বাহরাইনের মানামার শহরের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করায় কাতারের সঙ্গে শুধু কূটনৈতিক সম্পর্ক নয়; দোহার সঙ্গে আকাশ পথের এবং সমুদ্র পথের সকল যোগাযোগও ছিন্ন করেছে বাহরাইন। বাহরাইনের স্থানীয় গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, কাতারের নাগরিকদের ১৪ দিনের মধ্যে বাহরাইন ত্যাগ করার নির্দেশও দিয়েছে বাহরাইন সরকার।

জাতীয় নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে রিয়াদও কাতারের সঙ্গে সকল সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। সৌদির রাষ্ট্রীয় সংস্থার বরাত দিয়ে এমনটি জানিয়েছে রয়টার্স।

সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসগোষ্ঠী আইএস এবং আল-কায়েদাকে সমর্থনের অভিযোগে ইয়েমেনে যৌথ সামরিক অভিযানে কাতারের অংশগ্রহণও বাতিল করে দিয়েছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট।

বাহরাইন এবং সৌদির পথেই হেঁটেছে মিশর। দোহার সঙ্গে সকল সম্পর্ক বাতিল করে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে কায়রো। জানিয়েছে স্পুটনিক সংবাদ সংস্থা। মিশরের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মতে, কাতারের সঙ্গে সমুদ্র পথের সকল নৌযান এবং আকাশ পথের সকল বিমান চুক্তিও বাতিল করেছে মিশর।

কায়রোর বিবৃতি অনুযায়ী, “মিশরের প্রতি কাতার কর্তৃপক্ষের আগ্রাসী মনোভাবের কারণে এবং আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করায় আরব প্রজাতন্ত্রী মিশর সরকার কাতারের সঙ্গে সকল কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করছে।”

সংযুক্ত আরব আমিরাতও এই বিষয় এক বিবৃতি প্রকাশ করেছে। বিবৃতিতে জানানো হয়, “সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসগোষ্ঠীকে অর্থ যোগান দিয়ে, চরমপন্থি হয়ে ওঠায় এবং নিষিদ্ধ সংগঠনকে সমর্থন করার দায়ে কাতারের সঙ্গে সকল সম্পর্ক ছিন্ন করা হলো।”

কাতারেরে ওপর আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার অবনতির ঘটানোর অভিযোগও এনেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। সংযুক্ত আরব আমিরাতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এমনটি জানিয়েছে রয়টার্স।

Related posts