September 25, 2018

‘কলঙ্কিত’ বিপিএল পবিত্র থাকবে তো?

aস্পোর্টস ডেস্ক::আল-আমিনের মতো পেসার জাতীয় দলে ঢুকতে পারছেন না। সাব্বির তো ক্ষমা চেয়ে পার পেয়েছেন। আছেন আরো বেশ কয়েকজন যারা টাকার খেলা বিপএলে গত আসরে ‘বিপথে’ পা বাড়িয়েছিলেন। বিসিবি শত চেষ্টা করেও আসরটি কলঙ্কমুক্ত রাখতে পারেনি। এবারের আসর ঘিরেও তাই শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

বিপিএলের পঞ্চম আসর শুরু হবে ৪ নভেম্বর। তার আগে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর হবে প্লেয়ার্স ড্রাফট। বিদেশি ক্রিকেটাদের দলে ভেড়ানোর প্রক্রিয়া এখনই শুরু করে দিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। এ প্রক্রিয়ায় এগিয়ে রয়েছে খুলনা টাইটানস। সাতজন বিদেশি ক্রিকেটার এরইমধ্যে দলে টেনেছে তারা।

বোঝাই যাচ্ছে এবার আগেভাগে কোমর বেঁধে নামছে দলগুলো। বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, গতবারের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার শৃঙ্খলার ব্যাপারে কঠোর হবেন কর্মকর্তারা। ২০১৬ সালে শুধু দেশি ক্রিকেটারদের উপর নজরদারি ছিল। এবার বিদেশি ক্রিকেটারদেরও চোখে চোখে রাখা হবে।

সাব্বির, আল-আমিনের বিতর্কিত কাণ্ডের পর বিসিবি নড়েচড়ে বসে। কিন্তু অনেক বিষয় আছে যেগুলো গণমাধ্যমে আসেনি। বিশেষ করে দুই ক্যারিবিয় ক্রিকেটারের কাহিনী। বিপিএল চলাকালীন তারা নিয়মিত বিতর্কিত কাজ করতেন।

বিসিবির এক কর্মকর্তা বলছেন, এবার আগে থেকেই সব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রতিটি দলের সঙ্গে আকসুর প্রতিনিধি নিয়মিত যোগাযোগ রাখবেন। সপ্তাহান্তে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো প্রতিবেদন জমা দিবে। স্থানীয় প্রশাসন এবং বিসিবির কর্মকর্তারা হুশিয়ার থাকবেন। বিপিএল চালু হওয়ার পর থেকে প্রত্যেক বছর কোনো না কোনো অঘটন ঘটছে। আন্তরিকতা থাকা সত্ত্বেও বিসিবির চোখ গলে ঘটনাগুলো ঘটে যায়।

কর্মকর্তারা আরো বলছেন, এবার কিছু হলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Related posts