September 22, 2018

কক্সবাজারে ফরাশি নওমুসলিম আটক!

মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের নিপীড়নের শিকার আরাকানের মুসলিম জনগোষ্ঠী রোহিঙ্গাদের মানবিক সাহায্যে নিয়োজিত ফরাশি এনজিও বারাকাসিটির কর্মকর্তা মুসা ইবনে ইয়াকুবকে বাংলাদেশের পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে বলে দাবি করছে কয়েকটি ফরাশি গণমাধ্যম।

এতে বলা হচ্ছে, গত ২২ ডিসেম্বর কক্সবাজারের রোহিঙ্গ শরণার্থী শিবির থেকে সন্দেহজনক তৎপরতার কারণে মুসা ইবনে ইয়াকুবকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার পাসপোর্টের নামের সঙ্গে তার বলা নামের পার্থক্য থাকায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

মুসার পাসপোর্টের নাম পুয়েমা চানচুয়িং। তিনি একজন নওমুসলিম ফরাশি নাগরিক। বারাকাসিটি নামক একটি ফরাসি এনজিওর রোহিঙ্গ সহায়তা কার্যক্রমের প্রকল্প ব্যবস্থাপক তিনি।

জানা গেছে, বারাকাসিটি এনজিওটি ফ্রানন্স ভিত্তিক সালাফি মুসলমানদের একটি সাহায্য সংস্থ। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নিপীড়িত মুসলমানদের জন্য প্রতি বছর কয়েক মিলিয়ন ইউরো খরচ করে থাকে সংস্থাটি।

পুলিশ এ পর্যন্ত বেশ কয়েকবার ফ্রান্সের কুরকুরানে অবস্থিত সংস্থাটির কার্যালয়ে তল্লাসি চালিয়েছে এবং সন্দেহবশতঃ তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে। কিন্তু কোনোবারই তাদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী তৎপরতার প্রমাণ না পাওয়ায় এনজিওটির বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারেনি পুলিশ।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, তারা সংস্থাটির প্রতি নজর রাখলেও তাদের বিরুদ্ধে কোনো আইন বিরোধী কাজের প্রমাণ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মুসাকে আটকের ব্যাপারে বারাকাসিটির আইনজীবী সামিম বোলাকী বলেন, তিনি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের এতিমখানা ও স্কুল পরিদর্শন করতে গেলে তাকে মিয়ানমারের সীমান্ত থেকে আটক করা হয়।

মুসা ইবনে ইয়াকুবকে আটকের ব্যাপারে ঢাকার ফরাশি দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছে জানিয়ে আইনজীবী সামিম জানান, দূতবাস তাকে আইনী সহায়তা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে।

বর্তমানে মুসা জেলহাজতে আছেন জানিয়ে আইনজীবী অভিযোগ করেন, তিনি ৪০ জন বন্দীর সঙ্গে অত্যন্ত দুর্দশার মধ্যে দিন পার করছেন।

এদিকে ত্রাণকর্মী মুসাকে মুক্তির জন্য অনলাইনে প্রচারণা চালাচ্ছে বারাকাসিটি। সর্বশেষ খবরে জানা গেছে, মুসার মুক্তির জন্য খোলা একটি পিটিশনে এক লাখ ৩৭ হাজার ১০২জন সাক্ষর করেছেন।

সূত্র: রেডিও ফ্রান্স ইন্টারন্যাশনাল ও লিবারেশন ডট এফআর
দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts