November 19, 2018

ওষুধ কিনতে বেরিয়ে অপহরণ হন: পুলিশ

Captureঢাকা::কবি সাহিত্যিক কলামিস্ট ফরহাদ মজহারকে একটি অপহরণ মামলায় ভিকটিম হিসেবে তাকে আদালতে পাঠানো হবে। ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দির রেকর্ড করেই মামলার তদন্ত শুরু করবে পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার আবদুল বাতেন।

আবদুল বাতেন বলেন, গতকাল সকালে আমাদের কাছে একটি অভিযোগ আসে কবি, সাহিত্যিক ও কলামিস্ট ফরহাদ মজহারকে পাওয়া যাচ্ছেনা। তখন আমরা তদন্ত করতে শুরু করি। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে  ১০টার দিকে তাকে যশোরের অভয়নগর থেকে উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনার পর তার স্ত্রী ফরিদা আক্তারের কাছ থেকে জানতে পারি যে তাকে অপহরণ করা হয়েছে। তার কাছে মুক্তিপণ চাওয়া হয়েছে। এরপর এ ঘটনায় গতকাল সোমবার দিবাগত রাতেই আদাবর থানায় একটি অপহরণ মামলা করা হয়েছে।

ওই মামলায় ফরহাদ মজহারকে ভিকটিম হিসেবে আদালতে পাঠানো হবে। এবং সেখানে ১৬৪ ধারায় আদালতে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হবে। সেই জবাবনবন্দির ভিত্তিতেই মামলার তদন্ত শুরু হবে বলে জানান আবদুল বাতেন। গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার বলেন, ফরহাদ মজহারের ভাষ্যমতে তিনি গতকাল সোমবার ভোরে ওষুধ কিনতে বেরিয়েছিলেন। তখন কয়েকজন লোক তাকে জোর করে গাড়িতে তোলে এবং তার চোখ মুখ বেঁধে ফেলে।

এরপর ফরহাদ মজহারের ফোন থেকেই তার স্ত্রীকে ফোন করে মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এ ব্যাপারে তদন্ত ছাড়া অন্য কোন কথা বলা সম্ভব নয় বলেও জানান গোয়েন্দা পুলিশের এই কর্মকর্তা।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার, জনসংযোগ ও গণমাধ্যম শাখার উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান ও অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী এবং ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পশ্চিম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ রাসেল।

Related posts