September 25, 2018

ঐতিহ্য দিয়েই বাংলাদেশকে বরণ করে নিচ্ছে হায়দরাবাদ

musidহায়দরাবাদ শহরটার ধুলো কণাতেও যেন মিশে আছে ইতিহাস। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে দক্ষিণ ভারতের এই শহরটা এরই মধ্যে আতিথ্য দিয়েছে। ৯ ফেব্রুয়ারি শুরু যে টেস্টটাকে বলা হচ্ছে ‘ঐতিহাসিক’। এবার হায়দরাবাদ ক্রিকেট সংস্থা (এইচসিএ) বাংলাদেশ-ভারত ঐতিহাসিক টেস্ট উপলক্ষে ফিরে যেতে চাইছে পুরোনো এক ঐতিহ্যে।

দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে এটাই হবে ভারতে প্রথম টেস্ট। এ উপলক্ষে এইচসিএ প্রকাশ করবে বিশেষ ক্রোড়পত্র। আগে রাজ্য ক্রিকেট সংস্থাটি তাদের ভেন্যুতে কোনো ম্যাচ পেলে সেই উপলক্ষে স্মরণিকা প্রকাশ করত। যে চলটা থেমে গিয়েছিল। বাংলাদেশকে উপলক্ষ করে আবারও নতুন করে স্মরণিকা প্রকাশের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এতে করে এক ম্যাচের এই সফরটার স্মৃতি অন্তত বইয়ের পাতায় থেকে যাবে।
এইচসিএ ম্যাচটিকে বিশেষ এক উপলক্ষ মনে করছে। সংস্থাটি এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘হায়দরাবাদ ক্রিকেট সংস্থার বর্তমান নির্বাহী কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে এর পুরো এক ঐতিহ্যকে আবারও জাগিয়ে তোলা। ভারতে বাংলাদেশ-ভারত প্রথম ঐতিহাসিক এই টেস্ট স্মরণীয় করে রাখতে আমরা একটি স্মরণিকা প্রকাশ করতে যাচ্ছি।’
এই ঐতিহ্য যে কত পুরোনো, সেটিও উল্লেখ করা হয়েছে বিবৃতিতে, ‘ভারত প্রথম যে কমনওয়েলথ দলটা সফরে এসেছিল, এইচসিএ তখন সেই ম্যাচের আয়োজন করে। সেকুনদরাবাদ জিমখানা মাঠে ম্যাচটি হয়েছিল। তখন থেকেই ম্যাচ উপলক্ষ্যে একটি স্মরণিকা প্রকাশ করা হয়েছে। নব্বইয়ের দশকের শুরু পর্যন্ত এই রেওয়াজ ছিল। যখন বিদেশি কোনো দল ভারতে এসেছে, বিসিসিআই যখন একটি ম্যাচ হায়দরাবাদকে দিয়েছে, এইচসিএ সেই উপলক্ষে স্মরণিকা প্রকাশ করেছে।’
এবারের স্মরণিকাটি সংগ্রহে রাখার মতোই হবে। এতে লিখবেন ভারতের প্রথম বিশ্বকাপজয়ী দলের ম্যানেজার পিআর মান সিং। আব্বাস আলী বেগ, মহিন্দর অমরনাথ, ভিভিএস লক্ষ্মণ, ভেংকটরাঘবন, সৈয়দ কিরমানির মতো সাবেক প্রখ্যাত ক্রিকেটারদের পাশাপাশি হার্শা বোগলে, সুরেশ মেননের মতো ক্রিকেট ব্যক্তিত্বরাও লিখবেন। সঙ্গে থাকবে বাংলাদেশ-ভারত দ্বৈরথ নিয়ে নানা পরিসংখ্যান, ছবি ও কার্টুন।
২০০০ সালে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট দিয়েই যাত্রা শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের। অবশ্য এই প্রথম ভারতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে গেছে বাংলাদেশ। সূত্র: পিটিআই।

Related posts