November 16, 2018

ঐক্যের ডাকে সাড়া দিয়ে বি.বাড়ীয়া প্রবাসীদের মিলনমেলা

Untitled-1

বাবু সাহা,লেবাননঃ ভূমধ্যসাগরের পাড়ে হাজারো বছরের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি নিয়ে স্বমহিমায় অবস্থান করছে পাহাড়ময় লেবানন। বারবার যুদ্ধের কবলে পড়েও নিজেকে ফিরিয়ে আনার তাগিদ লেবাননের মধ্যে ছিল সব সময়ই। আর তাই এতগুলো সঙ্ঘাতের ঘা মুছে ফেলে আবারো পর্যটকদের আকর্ষণ করে চলছে সমানে। লেবাননের মোট জনসংখ্যা ৪,০১৭,০৯৫ জন।দেশটির আয়তন ১০৪৫২ বর্গ কিলোমিটার।এক সময় লেবানন  সৌন্দর্যের লীলা ভূমি হিসেবে সারা বিশ্বে সুনাম কুঁড়িয়েছিলো।লেবাননে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের সংখ্যা প্রায় ১,৫০.০০০জন।বাংলাদেশের পাশাপাশি অন্যান্য দেশের শ্রমিকরাও এদেশে কর্মরত আছে।বাংলাদেশী শ্রমিকদের বেশীর ভাগ জনগোষ্ঠীই বাংলাদেশের স্বনামধন্য জেলা ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার অধিবাসী।বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের গৌরবময় ইতিহাসে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার অবদান অনেক।ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কৃতি সন্তানদের মধ্যে রয়েছেন, খ্যাতিমান সঙ্গীতজ্ঞ ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ ,  ক্ষুদিরাম বসু এর সহযোগী উল্লাসকর দত্ত, বাঙালি ঔপন্যাসিক ও সাংবাদিক অদ্বৈত মল্লবর্মণ, আধুনিক বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি আল মাহমুদ, সাবেক সেনাপ্রধান আবু সালেহ মোঃ নাসিম,  অর্থনীতিবিদ আকবর আলী খান, মুজিব বাহিনীর অন্যতম সংগঠক ও বঙ্গবন্ধুর ‘চার খলিফা’র একজন, মুক্তিযোদ্ধা আবদুল কুদ্দুস মাখন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নবম গভর্ণর সালেহউদ্দিন আহম্মেদ, প্রবীন রাজনীতিবিদ লুৎফুল হাই সাচ্চু, হারুনুর রশীদ, হুমাযুন কবীর ও বর্তমান ব্রাহ্মণবাড়ীয়া সদর আসনের সংসদ সদস্য  র, আ, ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী সহ আরো অনেকে।

লেবাননে বৃহত্তর ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার প্রায় ৫০,০০০ হাজার এর অধিক প্রবাসী শ্রমিক ভাই-বোনদের সাহায্যার্থে বিগত ৫মাস আগে লেবাননের আইন আল রোমানী এলাকায় প্রতিষ্ঠিত হয় বি.বাড়ীয়া তিতাস প্রবাসী সংগঠন।সেই বি.বাড়ীয়া তিতাস প্রবাসী সংগঠন কে আরো শক্তিশালী করার লক্ষ্যে জুনি এলাকার ৯জন উদীয়মান তরুন একটি আহব্বায়ক কমিটি গঠন করে সারা লেবানন ব্যাপি ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বি.বাড়ীয়া প্রবাসী শ্রমিক ভাই-বোনদের একত্রে করার লক্ষ্যে ঐক্যের ডাক দিয়ে মিলন মেলার আয়েজন করে।লেবাননের প্রাকৃতিক বেষ্টিত সুন্দর জেলা জুনি’তে রবিবার বিকাল ৩.০০ ঘটিকায় মিলন মেলাটি অনুষ্ঠিত হয়।

মিলন মেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন, বি.বাড়ীয়া প্রবাসী লেবানন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোঃ মানিক মোল্লা, সভাপতিত্ব করেন, বি.বাড়ীয়া প্রবাসী মোঃ বিপ্লব, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন, বি.বাড়ীয়া প্রবাসী লেবানন আওয়ামী লীগ এর সভাপতি জসিম উদ্দিন সাজু, প্রবাসী সমাজ কল্যান এর সভাপতি মফিজুল ইসলাম বাবু, সিপন মোল্লা, মোহাম্মদ আলী, বাবুল রেজা, মোকাদ্দেস মিয়া, বি.বাড়ীয়া তিতাস প্রবাসী সংগঠন এর সিনিয়র সভাপতি জাকির হোসেন, শাহদাত হোসেন, মোঃ জাকির প্রমূখ।পরিচালনায় ছিলেন, বি.বাড়ীয়া প্রবাসী লেবানন আওয়ামী লীগ এর সাংগাঠনিক সম্পাদক মোঃ সোহেল মিয়া।

সভায় বক্তারা, আহব্বায়ক কমিটি সদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়ে সমগ্র বি.বাড়ীয়া বাসীকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বি.বাড়ীয়া তিতাস প্রবাসী সংগঠন এর সাথে একমত পোষন করে সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করার আহব্বান জানান।প্রধান অতিথি মানিক মোল্লা বি.বাড়ীয়া জেলার কৃতি সন্তানদের স্মরন করে বলেন, বিলম্বিত হলেও আজ লেবাননে প্রবাসীদের প্রয়োজনে ঐক্যের ডাকে সবাই সাড়া দিয়েছে।তাই তিনি বি.বাড়ীয়া বাসী সবাইকে ধন্যবাদ জানান।আজ লেবাননে আমরা সবাই মিলে যে বন্ধন সৃষ্টি করেছি, তা লেবাননে মাইলফলক হয়ে থাকবে।এখন থেকে আমাদের মধ্যে আর হিঃসা বিদ্ধেষ থাকবে না।আমরা একে অপরের ভাই হিসেবে প্রবাসে থাকবো।আমরা আমাদের মার্জিত ব্যবহারের মাধ্যমে লেবাননে বসবাসরত অন্যান্য জেলার ভাইদের হৃদয় জয় করে ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার গৌরবান্বিত ইতিহাস ফুটিয়ে তুলবো।প্রবাসে আমরা এমন কিছু করব না, যাতে বি.বাড়ীয়ার ঐতিহ্য ধূলোয় লুন্ঠিত হয়।আমাদের উদ্দ্যেশ্য হবে, লেবাননে বি.বাড়ীয়া প্রবাসী শ্রমিক ভাইয়েরা সহ অন্যান্য জেলার প্রবাসীদের পাশে থেকে সেবা প্রদান করা সহ জেলার উন্নয়নে ভূমিকা রাখা।মনে রাখতে হবে, আমরা সবাই বাংলাদেশী, আমরা একই মায়ের সন্তান।

আরো উপস্থিত ছিলেন, আহব্বায়ক কমিটির ৯জন উদীয়মান তরুন মোঃ সোহাগ খাঁন, মোঃ আলামিন, মোঃ বিপ্লব, মোঃ হুমায়ুন, মোঃ পলাশ, আলমগীর কাজী, মন্জু হাসান, মোঃ জসিম, সিয়াম হাজারি, বি.বাড়ীয়া তিতাস প্রবাসী সংগঠন এর নেতৃবৃন্দ সহ সমগ্র বি.বাড়ীয়া লেবানন প্রবাসী।

 

Related posts