September 24, 2018

এ কী শোনালেন ববি দেওল!

bobiবলিউড অভিনেতা ববি দেওল একসময় ভালোই জনপ্রিয় ছিলেন। অভিষেকের প্রথম বছর তাঁর ‘বারসাত’ ও ‘গুপ্ত: দ্য হিডেন ট্রুথ’ ছবি দুটি বেশ আলোচিত হয়েছিল। সেরা নবাগত অভিনেতা হিসেবে সে বছর ফিল্মফেয়ার পুরস্কারও জিতেছিলেন ববি। কিন্তু তাঁর সেই দর্শকপ্রিয়তা বলিউডে খুব বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। সম্প্রতি নিজের হারিয়ে যাওয়া তারকাখ্যাতি নিয়ে গণমাধ্যমে হতাশা প্রকাশ করেছেন তিনি। আর নিজের ক্যারিয়ার সম্পর্কে কিছু চমকপ্রদ তথ্যও দিয়েছেন।
ববি দেওল বলেন, ২০০৭ সালের সুপারহিট ছবি ‘জাব উই মেট’ ছবিতে নাকি নায়কের চরিত্রে তাঁর অভিনয় করার কথা ছিল। তিনি বলেন, ‘আমি ২০০৫ সালে ইমতিয়াজের ‘‘সোচা না থা’’ ছবিটি দেখেই তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করি। তাঁর গল্প বলার ভঙ্গি আমার খুব ভালো লাগে। আমি যে তাঁর সঙ্গে কাজ করতে চাই, সে কথা জানাই তাঁকে। তখন ইমতিয়াজ আলীর ‘‘জাব ইউ মেট’’ ছবির চিত্রনাট্য প্রস্তুত করাই ছিল। তিনি একজন প্রযোজক খুঁজছিলেন। তখন অবশ্য ছবিটির নাম দেওয়া হয়েছিল ‘গীত’’।’

ববি দেওল দাবি করেন, তিনিই এই ছবির নায়িকার চরিত্রে কারিনার নাম প্রস্তাব করেন। কিন্তু সে সময় কোনো প্রযোজক কারিনাকে নিয়ে এই ছবি তৈরি করতে রাজি হননি। তারপর ববি নিজে থেকেই প্রীতি জিনতার সঙ্গে কথা বলেন। প্রীতি রাজি ছিলেন; কিন্তু শিডিউল ফাঁকা না থাকায় তাঁকে নিয়েও সিনেমাটি তৈরি করা সম্ভব হয়নি।
ববি দেওলের ভাষ্য, ‘এরপর হঠাৎ একদিন আমি শুনলাম ইমতিয়াজ আলী নাকি কারিনা কাপুর ও শহীদ কাপুরকে নিয়ে এই ছবি বানাচ্ছেন। আমি তখন খুব অবাক হয়েছিলাম।’
এমনকি ববি দেওল দাবি করেন, ইমতিয়াজ আলীর ‘হাইওয়ে’ ছবিতেও তাঁর কাজ করার কথা ছিল। এরপর তাঁর বদলে নেওয়া হয় রণদীপ হুদাকে।
ভারতীয় গণমাধ্যম অবশ্য ববির এসব কথা হেসেই উড়িয়ে দিচ্ছে। অনেকে তাঁকে নিয়ে এখন তামাশাও করছেন। ইন্ডিয়া টুডে।

Related posts