September 21, 2018

এমপি’র ছত্রছায়ায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে জেএমবি


ঢাকাঃ  ২০০৪ সালে জেএমবির আতুরঘর হিসেবে পরিচিত ছিল রাজশাহীর বাগমারা। সে সময় বাংলা ভাইয়ের অন্যতম সহযোগী হিসেবে কাজ করেছেন এমন অনেকেই খোলস পাল্টে জেএমবি সদস্য ঢুকে পড়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ জোটের মধ্যে।

গ্রামবাসীর অভিযোগ, স্থানীয় সংসদ সদস্যের ছত্রছায়ায় বহাল তবিয়তে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে তারা। অবশ্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দাবি, কঠোর নজরদারিতে আছে তারা।

দেশজুড়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সাড়াশি অভিযানে অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্যসহ গ্রেফতার হচ্ছে জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ, জেএমবি’র সক্রিয় সদস্যরা। সর্বহারা দমনের নামে ২০০৪ সালে রাজশাহীর বাগমারায় আত্মপ্রকাশ ঘটে এই জঙ্গি সংগঠনের। সে সময় বাংলা ভাইয়ের রাজত্ব কায়েম করতে আলতাফ মোল্লা, আয়েন উদ্দিন, আলমগীর সরকার, আকবর আলীসহ গ্রামের অনেকে তার সহযোগী হিসেবে কাজ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সংগৃহীত ভিডিও ফুটেজে তাদের একসাথে বৈঠক করতে দেখা গেছে। অথচ স্থানীয় সংসদ সদস্য এনামুল হকের ছত্রছায়ায় এখন তারাই বনে গেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী ও দাপটে নেতা এমনটাই অভিযোগ গ্রামবাসীর।

অবশ্য অভিযুক্তদের কেউ কেউ প্রাণভয়ে বৈঠক করার কথা স্বীকার করলেও জেএমবি করার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন তারা। আয়েন উদ্দিন বলেন, ‘অস্ত্র ঠেকিয়ে তারা যখন বললো যেতেই হবে আর তখন আমরা সবাই নিরুপায় হয়ে, প্রাণের ভয়ে সেখানে গিয়েছি।’

আলমগীর সরকার বলেন, ‘চেয়ারম্যানের বাড়িতে যে কেউ আসতে পারে এর জন্য তাকে চিহ্নিত করতে হবে এমন কোনো কথা নেই।’

তবে গ্রামবাসীর অভিযোগের সাথে একমত বাগমারা রাজশাহী উপজেলা চেয়ারম্যান জাকিরুল ইসলাম সান্টু। এদিকে র‌্যাব-৫ রাজশাহী অধিনায়ক মো. মাহবুবুর রহমান জানান, তাদের ওপর বাড়তি নজরদারি রাখা হয়েছে।

সরকারি সফরে দেশের বাইরে থাকায় এ ব্যাপারে স্থানীয় সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হকের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে সম্প্রতি ইউপি নির্বাচনে অর্থের বিনিময়ে জেএমবি সদস্যদের মনোনয়ন দেয়ার অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে।

সূত্রঃ সময় টিভি

Related posts