September 21, 2018

‘এভাবে হত্যা? পৃথিবী বাসযোগ্য থাকবে না’

ফাইল ছবি

ঢাকাঃ  প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, এক ধর্মের লোক অন্য ধর্মাবলম্বীদের সহ্য করতে না পারা অথবা ভিন্নমতের কারণে যদি মানুষকে হত্যা করতে হয় তাহলে পৃথিবী মানুষের জন্য বাসযোগ্য থাকবে না।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সুপ্রিমকোর্ট মাজার মসজিদে হজরত শাহ খাজা শরফুদ্দীন চিশতী রহ.-এর স্মরণে দুই দিনব্যাপী ওরশের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, দৃঢ়ভাবে বলা যায় বিশ্বের যেকোনো দেশের জন্য বাংলাদেশ ধর্মীয় সম্প্রীতির এক অনন্য উদাহরণ। অন্যান্য ধর্মাবলম্বীরাও এখানে ধর্মীয় সম্প্রীতির আবহে তাদের ধর্মকর্ম পালন করেন। এটি এ দেশের ঐতিহ্য ও গর্ব। তবে মাঝে মাঝে সংবাদপত্রে ধর্মীয় বিভেদের কারণে খুন, মারামারি এবং ভাঙচুরের সংবাদ দেখা যায়। এটা যে কেবল ভিন্ন ধর্মাবলম্বী হওয়ার কারণে তা নয়, মুসলিমদের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মাঝেও এ রকম ঘটতে দেখা যায়।

এসকে সিনহা বলেন, উগ্র মতাদর্শকে আমি যেমন সমর্থন করি না আপনারাও নিশ্চয়ই করবেন না। মানব জীবনের চালিকা শক্তি হচ্ছে ধর্ম। আধুনিক বৈজ্ঞানিক প্রযুক্তি, সভ্যতা মানুষের লোভকে লাগামহীন করে তুলেছে। সারা বিশ্বে মানবতা আজ বিপর্যস্ত ও বিপন্ন। আমাদের মাঝে ন্যায়বিচার, সুশাসন, কল্যাণ, ঐক্য, শৃঙ্খলা ও নৈতিকতাবোধের বড়ই অভাব।

তিনি বলেন, মানুষের আত্মকেন্দ্রিকতা যে লোভ ও আগ্রাসনে উৎসরিত হয়েছে তাই মানুষের মন্দ কাজের মূল। লোভ জীবনের সহজাত। এর মুক্তি কোথায় এবং কিভাবে এর উত্তর খুঁজে বের করতে হলে মহামনীষীদের জীবনী ও জীবনদর্শন নিয়ে চর্চা করতে হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সুপ্রিমকোর্ট মাজার ও মসজিদ প্রশাসন কমিটির সভাপতি আপিল বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মাজার ও মসজিদ প্রশাসন কমিটির সদস্য বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন, বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হক, প্রধান বিচারপতি একান্ত সচিব মো. আনিসুর রহমান ও সুপ্রিমকোর্ট মাজার ও মসজিদ প্রশাসন কমিটির সদস্য সচিব অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার (বিচার ও প্রশাসন) সাব্বির ফয়েজ প্রমূখ।

Related posts