September 24, 2018

এবার কক্সবাজারে ২০০০০ হাজারের মতো পরীক্ষার্থী

636
সোমবার সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজারেও শুরু হচ্চে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। কক্সবাজারের ৪১ টি কেন্দ্রে অংশ নিতে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করেছে ১৯ হাজার ৭০৯ জন পরীক্ষার্থী। এরমধ্যে এসএসসির ২৩ কেন্দ্রে ১৩ হাজার ৭৫৯ জন, দাখিলের ১২ কেন্দ্রে ৫ হাজার ২৩২ জন এবং কারিগরির ৬ কেন্দ্রে ৭১৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়ার কথা রয়েছে।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের শিক্ষা ও কল্যাণ শাখা সূত্র আরও জানায়, এবারের এসএসসি পরীক্ষায় সদর উপজেলায় কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ টি। এর মধ্যে কক্সবাজার সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী রয়েছে ৬৫৫ জন। ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৫২৬ জন। কক্সবাজার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১ হাজার ১২০ জন। ঈদগাঁও জাহানারা ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪৪৪ জন। কক্সবাজার মডেল হাইস্কুল কেন্দ্রে ৫৩২ জন পরীক্ষার্থী।

এছাড়া সদর উপজেলায় দাখিলে কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ৩টি। এরমধ্যে ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ৪১০ জন। ঈদগাঁও আলমাছিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে ৪০৭ জন এবং কক্সবাজার আদর্শ মহিলা কামিল মাদ্রাসায় ৪৩১ জন। এছাড়া কারিগরিতে কক্সবাজার টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ২২৭ জন।

রামু উপজেলায় এসএসসির ২ কেন্দ্রের রামু খিজারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪৬০ জন এবং রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪৪৪ জন পরীক্ষার্থী। রামুতে দাখিলে রামু মেরংলোয়া রহমানিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ৪০৬ জন। এ ছাড়া কারিগরিতে কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ২ টি। এর মধ্যে রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১৭২ জন এবং রামু টেক্সটাইল ইনস্টিউট কেন্দ্রে ৮০ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে।

চকরিয়া উপজেলায় এসএসসির নির্ধারিত ৪ কেন্দ্রের মধ্যে চকরিয়া সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ১ হাজার ৯০৭ জন। চকরিয়া সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১ হাজার ২২৬ জন। ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪১০ জন। চকরিয়া কোরক বিদ্যাপিঠ কেন্দ্রে ৬৩ জন। উপজেলায় দাখিলের ২ কেন্দ্রের মধ্যে চকরিয়া আনওয়ারুল উলুম ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ৮৪৩ জন এবং চকরিয়া আমজাদিয়া রফিকুল উলুম ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে ৩৮১ জন। এ ছাড়া কারিগরিতে চকরিয়া কিশলয় আদর্শ শিক্ষা নিকেতন কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী রয়েছে ১৪৯ জন।

পেকুয়া উপজেলায় এসএসসির ২কেন্দ্রের মধ্যে পেকুয়া জি,এম,সি ইনস্টিটিউশন কেন্দ্রে ৫১৬ জন এবং পেকুয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২৮১ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে।

কুতুবদিয়া উপজেলায় এসএসসির ২ কেন্দের মধ্যে কুতুবদিয়া সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৬০৬ জন এবং ধুরুং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৩০০ জন পরীক্ষার্থী। কুতুবদিয়ায় দাখিলে কুতুবদিয়া বড়ঘোপ ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে ৪৪০ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে।

মহেশখালী উপজেলায় এসএসসির ৩ কেন্দ্রের মধ্যে মহেশখালী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৭৯৭ জন। কালারমারছড়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৩৫৭ জন এবং মাতারবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৩৭১ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। দাখিলে ২ কেন্দ্রের মধ্যে মহেশখালী পুটিবিলা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে ৩৮৭ জন এবং মহেশখালী কালারমারছড়া কেন্দ্রে ৩৪২ জন পরীক্ষার্থী। এ ছাড়া কারিগরিতে একটি কেন্দ্রে মহেশখালী আইল্যান্ড হাইস্কুল কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী রয়েছে ৬১ জন।

উখিয়া উপজেলায় এসএসসির ২কেন্দ্রের মধ্যে উখিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৮০০ জন এবং উখিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪৫০ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। দাখিলে উখিয়া রাজাপালং এম,ইউ ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ৪১৮ জন। এবং কারিগরিতে উখিয়ায় নুরুল ইসলাম চৌধুরী বিএম স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী রয়েছে ২৯ জন।

টেকনাফ উপজেলায় এসএসসির ৩ কেন্দ্রের মধ্যে টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২১০ জন। এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ২৮১ জন এবং আলী আছিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪০৩ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। দাখিলে টেকনাফ রঙ্গিখালী দারুল উলুম ফাজিল ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী রয়েছে ৩২৯ জন।

জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন বলেন, পরীক্ষা সুষ্ঠ ও সুন্দর পরিবেশে সম্পন্ন করতে প্রত্যেক উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বিগত বছরগুলোর মতো পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে কেন্দ্রের চারপাশে নির্দিষ্ট দুরত্ব পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারির বিধান বলবৎ রয়েছে।

জেলা প্রশাসন থেকেও পুরো জেলায় মনিটরিং করার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি সুন্দরভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন করতে অভিভাবকসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts