November 18, 2018

একই পরিবারের তিন লাশ, আর্তনাদে কাঁদছে এলাকাবাসী!

একই পরিবারের ৩ জনের লাশ,স্বামী,দুই সন্তান

রফিকুল ইসলাম রফিক,নারায়ণগঞ্জঃ  নারায়ণগঞ্জে বুড়িগঙ্গা নদীতে ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ একই পরিবারের ৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ উদ্ধারের পর স্বামী, সন্তান হারিয়ে পাগল প্রায় হয়ে আছেন লুৎফা বেগম। শোকে বার বার মুর্ছা যাচ্ছেন। আর স্বামী সন্তানকে পেতে ছুটে যাচ্ছেন সিদ্ধিরগঞ্জ কবরস্থানে। কোন বাঁধনেই আর ফিরে পাবেন না স্বামী সন্তানকে। তবুও তার বুক ফাঁটা আর্তনাদে চোখের জল ধরে রাখতে পারছেন না এলাকাবাসী। এ ঘটনায় শোকের মাতম ঘিরে ধরেছে সিদ্ধিরগঞ্জবাসীকে। কোন সান্তনাই আর মুখের হাসি ফোটাতে পারছেনা। সিদ্ধিরগঞ্জের হাজার হাজার মানুষ লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে ছুটে আসে নিহতদের বাসায়।

মঙ্গলবার সকাল ১০ টা থেকে বেলা সাড়ে ১১ টার মধ্যে বুড়িগঙ্গা নদীর বিভিন্ন স্থানে পৃথক লাশ গুলো ভেসে উঠলে পুলিশ সেগুলো উদ্ধার করে। এরা হলেন- সিদ্ধিরগঞ্জ মিজমিজি মোতালিবের বাড়ির ভাড়াটিয়া সেলিম খান (৪৫), তার ছেলে ইমান খান (১৫) ও মেয়ে মৌসুমী আক্তার (১৬)। পরে, দুপুর ২ টায় মিজমিজি কবর স্থানে তাদের দাফন করা হয়েছে। নিহত সেলিম সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পাইনাদি এলাকার মুজিবর মিয়ার ছেলে। এর আগে গত সোমবার বিকেলে আব্দুল কাদির নামের এক যাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

প্রসঙ্গত, শনিবার সকালে ফতুল্লার বক্তাবলীর রাধানগরে সোলেমান ওরফে লেংটা নামের এক পীরের ওরশ থেকে ফেরার পথে ৩০-৩৫ জন মানুষ আলীরটেক খেয়াঘাট হতে নারায়ণগঞ্জ আসার জন্য খেয়াপারের ট্রলারে উঠেন। ওই সময়ে ঢাকাগামী একটি লঞ্চের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলারটি ডুবে যায়।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts