September 24, 2018

উইন্ডোজ ফোনকে বিদায় জানাল মাইক্রোসফট

Captureপ্রযুক্তি ডেস্ক::উইন্ডোজ ফোনের দিন কি শেষ? এখন থেকে উইন্ডোজ ফোন ৮.১ অপারেটিং সংস্করণের জন্য কোনো হালনাগাদ দেয়া হবে না। অথচ এটিই প্রতিষ্ঠানটির মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় সংস্করণ। বর্তমানে ৮০ শতাংশ উইন্ডোজ ফোন চলছে এ সংস্করণে।

গত মঙ্গলবার সংস্করণটির জন্য সব ধরনের হালনাগাদ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে মার্কিন সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানটি। ভবিষ্যতে ফোন ব্যবসা পুনরুজ্জীবিত করার পরিকল্পনা থাকতে পারে মাইক্রোসফটের। কিন্তু এ মুহূর্তে আর নয়।

তীব্র প্রতিযোগিতাপূর্ণ বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে নাজুক অবস্থায় রয়েছে মাইক্রোসফট। ডিভাইস ব্যবসা জোরদারের যে লক্ষ্য নিয়ে নকিয়ার সেলফোন বিভাগ অধিগ্রহণ করেছিল, তা পূরণে ব্যর্থ হয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। অধিকৃত নকিয়ার সেলফোন বিভাগ এখন প্রতিষ্ঠানটির সবচেয়ে বড় লোকসানি ব্যবসায় পরিণত হয়েছে।

মাইক্রোসফটের তথ্যমতে, উইন্ডোজ ফোন ৮.১ চালিত ডিভাইস ব্যবহারকারীদের জন্য এখন থেকে নিরাপত্তা প্যাচ, বাগ ফিক্স বা ত্রুটি সারাইসহ অন্য কোনো সফটওয়্যার হালনাগাদ সরবরাহ করা হবে না। অর্থাৎ সমর্থন বন্ধের ঘোষণার পরও কেউ উইন্ডোজ ফোন ৮.১ চালিত ডিভাইস ব্যবহার করলে নিরাপত্তার দায়িত্ব নিজেকেই নিতে হবে। মাইক্রোসফট এর আগে উইন্ডোজ ফোন ৮.১ চালিত লুমিয়া ১৫২০, লুমিয়া ৯৩০, লুমিয়া ৮৩০ ও লুমিয়া ৭৩৫ ডিভাইসগুলোর জন্য উইন্ডোজ ১০ হালনাগাদ দিয়েছিল। কিন্তু অনির্দিষ্ট কারণে এসব ডিভাইসের সিংহভাগ হালনাগাদ পায়নি। বেশকিছু ব্যবহারকারী ইচ্ছা করেই হালনাগাদ সুবিধা নেয়নি।

২০১৬ সালের জানুয়ারি এবং ২০১৪ সালের অক্টোবরে যথাক্রমে উইন্ডোজ ফোন ৮ ডেনিম এবং উইন্ডোজ ফোন ৭.এক্সের হালনাগাদ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছিল মাইক্রোসফট। সফটওয়্যার হালনাগাদ বন্ধের পাশাপাশি গত দুই বছরে উইন্ডোজ ফোন অপারেটিং সিস্টেমের পুরনো সংস্করণগুলো জন্য জনপ্রিয় হোয়াটসঅ্যাপ মেসেঞ্জারের মতো বেশকিছু অ্যাপের সমর্থন বন্ধ করা হয়েছে। চলতি মাসের শুরুর দিকে উইন্ডোজ ফোন স্টোর থেকে ইভারনোট অ্যাপ সরিয়ে ফেলা হয়।

গত এপ্রিলে উইন্ডোজ সফটওয়্যারের নতুন সংস্করণ উইন্ডোজ ১০ ক্রিয়েটরস হালনাগাদ দিতে শুরু করে মাইক্রোসফট। একই সঙ্গে কিছু খারাপ বার্তা দিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। কারণ উইন্ডোজ ১০ মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমটিতে সবার জন্য হালনাগাদ সুবিধা রাখা হয়নি। সে সময় আপগ্রেড অ্যাডভাইজর অ্যাপটিও বন্ধ করা হয়। অর্থাৎ কয়েকটি মডেলের ডিভাইস ছাড়া অধিকাংশ উইন্ডোজ ১০ চালিত স্মার্টফোনের জন্যও সমর্থন বন্ধ করেছে মাইক্রোসফট।

বিশ্লেষকদের মতে, কয়েক হাজার গ্রাহক উইন্ডোজ ১০ মোবাইল ব্যবহারের সুবিধা পাবেন। কিন্তু একটা বিষয় পরিষ্কার যে মাইক্রোসফট আনুষ্ঠানিকভাবে উইন্ডোজ ফোনকে বিদায় জানাচ্ছে, যা উইন্ডোজ মোবাইল নামেই বেশি পরিচিত।

বৈশ্বিক মোবাইল ডিভাইস বাজারে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএসের সঙ্গে প্রায় এক দশকের লড়াইয়ের পর হাল ছেড়ে দিয়েছে মাইক্রোসফট। শুধু সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানটিই নয়। উইন্ডোজ ফোনের জন্য বিবিওএসের সমর্থন বন্ধ করেছে ব্ল্যাকবেরি। প্লাটফর্মটি ঘিরে মজিলা তাদের ফায়ারফক্স ওএস সমর্থন বন্ধ করেছে। প্রকৃতপক্ষে কেউ অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএসের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হতে চায় না।

মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সত্য নাদেলা গত বছর জানান, মোবাইল ডিভাইস বাজারে তারা স্পষ্টতই ব্যর্থ হয়েছেন। মোবাইল হার্ডওয়্যারের পরিবর্তে ব্যবসা প্রবৃদ্ধির জন্য তারা নতুন খাতে গুরুত্ব দিতে যাচ্ছেন। সত্য নাদেলার নেতৃত্বে গুরুত্বপূর্ণ কিছু পরিবর্তন এসেছে মাইক্রোসফটে। এগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো প্রতিদ্বন্দ্বী অপারেটিং সিস্টেম প্লাটফর্মে প্রতিষ্ঠানটির অ্যাপ ও সেবা সহজলভ্য করা হয়েছে।

Related posts