November 19, 2018

ইসরায়েলের সাথে সম্পর্কোন্নয়নে গুরুত্বারোপ

ইসরায়েলের সাথে সম্পর্কোন্নয়নে গুরুত্বারোপ করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েফ এরদোগান। দেশটির শীর্ষস্থানীয় কয়েকটি পত্রিকায় শনিবার এমন খবর প্রকাশ করা হয়েছে। এতথ্য জানিয়েছে এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই দেশই সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পথ খুঁজছে। ন্যাটোভুক্ত তুরস্ক আঞ্চলিক ক্ষেত্রে বড় শক্তি। ২০১০ সালে গাজার জন্য সহায়তা পাঠানো জাহাজ মাভি মারমারায় ধ্বংস করেছিল ইসরায়েলের কমান্ডো বাহিনী।

ওই সময় প্রেসিডেন্ট এরদোগান ইহুদি রাষ্ট্রের তীব্র সমালোচনা করেছিল। তবে গত মাস থেকে দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক পুনঃস্থাপনকে গুরুত্ব দিচ্ছেন এরদোগান। রাশিয়ার সঙ্গে বৈরি সম্পর্কের জন্য ধীরে ধীরে এখন বরফ গলতে শুরু করেছে দুইদেশের মধ্যে।

আঞ্চলিক উন্নয়নে তুরস্কের মতো দেশকে ইসরায়েলের অবশ্যই প্রয়োজন। অপর দিকে  ইসরায়েলকে তুরস্কের প্রয়োজন। বাস্তবতার পরিপ্রেক্ষিতেই এটি প্রয়োজন বলে মনে করেন এরদোগারন। তুরস্ক-ইসরায়েল আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করলে আরো উন্নয়ন সম্ভব বলে মনে করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

২০১০ সালে মাভি মারমারে সহায়তা জাহাজ ধ্বংসের পরে সংকটের সময় তুরস্কের রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহার করেছিলেন প্রেসিডেন্ট এরদোগান। ২০১০ সালের ওই দুর্ঘটনার জন্য তুরস্কের পক্ষ থেকে তিনটি শর্ত ছিল ইসরায়েলের। ১. গাজার উপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার, ২. মাভি মারমারার ভিকটিমদের ক্ষতিপূরণ এবং ৩. ওই দুর্ঘটনার জন্য ক্ষমা চাওয়া।

এই তিনটি শর্ত মানলে ইসরায়েল-তুরস্কের সম্পর্ক স্বাভাবিক করা হবে এমন শর্তের মধ্যে ইসরায়েল ইতিমধ্যে ক্ষমা চেয়েছে আর ভিকটিমদের পরিবারের ক্ষতিপূরণ দিতে সম্মত হয়েছে। আর গাজায় নিত্য পণ্য সহায়তার ক্ষেত্রে ইসরায়েলের পক্ষে বলা হয়েছে তুরস্ক হয়ে পণ্য পাঠানো হলে তারা মেনে নেবে। তবে ইসরায়েলের কাছে এই বিষয়ে লিখিত তথ্য ও প্রমাণাদি চেয়েছে তুরস্ক।

তুরস্কের বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, রাশিয়ার বিমান ভুপাতিত করার পরে দেশটির সঙ্গে আঙ্কারার সম্পর্ক নষ্ট হয়। আঙ্কারার গুরুত্বের উপর ইসরাসেলের উন্নয়ন সম্পর্ক নির্ভর করছে। গত মাসে এরদোগান হামাসের প্রধান নেতা খালেদ মিসেলের সঙ্গে আলোচনা বন্ধ করে দেন। তবে ফিলিস্তিনের ইসলামি মুভমেন্টের সঙ্গে কি আলোচনা হয়েছে সেই বিষয়েও কিছু বলা হয়নি। এএফপি

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts