September 22, 2018

আ.লীগ প্রার্থীর প্রচারাভিযানে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বাধা!

আল-মামুন,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে সরকার দলীয় মেয়র প্রার্থীর প্রচারণায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের হামলা অভিযোগ করেছে আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী মোঃ শানে আলম। বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটায় জেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি এ অভিযোগ করেন।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী মোঃ শানে আলম সাংবাদিকদের বলেন, নৌকা প্রতীকের পক্ষে প্রচারণা চালাতে দলীয় শীর্ষ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও সমর্থকরা পৌর শহরের ৫নং ওয়ার্ডের কুমিল্লাটিলা এলাকায় যায়। সেখানে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী রফিকুল আলম ও তার ছোট ভাই জেলা আওয়ামীলীগের ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলম অস্ত্র ও লাঠিসোঠায় সজ্জিত ক্যাডার বাহিনী নিয়ে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ও সমর্থকদের উপর হামলা চালায়।

এতে জেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক জানু সিকদার ও ছাত্রলীগ কর্মী জয় দত্তসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। তাকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আমরা হামলার বিষয়ে রিটার্নিং অফিসারকে মৌখিক ভাবে অভিযোগ করেছি এবং লিখিত ভাবেও অভিযোগ উত্থাপন করার প্রস্তুতি চলছে। এঘটনায় চিহ্নিত হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলেও জানান তিনি।

নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরোধীতা করা নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয় নিশ্চিত করে জেলা আওয়ামীলীগের জ্যৈষ্ঠ সহ-সভাপতি রণ বিক্রম ত্রিপুরা সাংবাদিকদের বলেন, খাগড়াছড়ির দুই পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য জেলা আওয়ামীলীগ ও উপজেলা আওয়ামীলীগ দুইটি প্রতিনিধি দল করেছে। যারা এদলের বাইরে থেকে দলীয় প্রতীকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে কাজ করছে তারা সংগঠনের গঠনতন্ত্র মোতাবেক অটো বহিস্কার হয়ে  গেছে।
অপরদিকে মাটিরাঙায় গত মঙ্গলবার নিহত হওয়া ব্যক্তিকে নিজেদের কর্মী দাবী করে তিনি আরো বলেন, নিহত নজরুল ইসলাম গত ১১ নভেম্বর আওয়ামীলীগে যোগদান করেছে।

বিএনপির পক্ষ থেকে যে দাবী করা হচ্ছে তা ভিত্তিহীন। জেলা বিএনপির সভাপতি ওয়াদুদ ভূইয়া হত্যাকান্ডের জন্য মোঃ জাহেদুল আলমকে দায়ী করার বিষয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, মোঃ জাহেদুল আলম জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হওয়া শর্তেও তিনি দলীয় প্রতীকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে তার ভাই স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী রফিকুল আলমের পক্ষে কাজ করছে। তার মাটিরাঙা যাওয়া বা কাজ করার সর্ম্পকে দলের কেউ অবগত নন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের জ্যৈষ্ঠ সহ-সভাপতি কল্যাণ মিত্র বড়–য়া, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য জুয়েল চাকমা, আশুতোষ চাকমা, মংসাপ্রু চৌধুরী অপু, নিগার সুলতানা, শতরূপা চাকমা।

মাটিরাঙা পৌরসভার প্রার্থীদের নিয়ে আইন শৃঙ্খলা মনিটরিং সেলের বিশেষ সভা
আল-মামুন,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: জেলার মাটিরাঙা পৌরসভায় প্রতিদ্বন্দ্বী করা মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীদের নিয়ে বিশেষ সভা করেছে নির্বাচনের আইন শৃঙ্খলা মনিটরিং কমিটি। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় মাটিরাঙা উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মাটিরাঙা পৌরসভা নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং অফিসার মোঃ নুরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রার্থীদের নির্বাচনী আচরণ বিধি প্রতিপালনে সজাগ থাকতে নিদের্শ দেন জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান ও পুলিশ সুপার মোঃ মজিদ আলী।

সভায় প্রার্থীদের উদ্দেশ্যে নির্বাচনী আচরণ বিধি পড়ে শুনান রিটার্নিং অফিসার মোঃ নুরুল আলম।

প্রার্থীদের মতামত পর্বে প্রার্থীরা একে অপরের বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচারণায় চালাতে বাধা প্রদান ও হুমকির অভিযোগ এনে সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে সেনাবাহিনী মোতায়নের দাবী জানান। আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক সভায় প্রার্থী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যবৃন্দসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts