September 19, 2018

আয়ুর্বেদিক সিএমই কোর্স নিয়ে কিছু কথা

স্বপন পাল, ঢাকাঃ নুর-মজিদ আয়ুর্বেদ কলেজ আয়োজিত ‘ত্রিদোষ  থিওরি – এ স্কুল অব লাইফ ডিসিপ্লিন’ শীর্ষক  প্রথম আয়ুর্বেদিক সিএমই কোর্স অনুষ্ঠিত হয়ে গেল । গত ১০, ১৭ এবং ৩১ অক্টোবর মোট ৪ সেশনে কোর্সটি সম্পন্ন হয়। ৩১ অক্টোবর সকাল ও বিকাল দুইটি সেশন হয়। মাঝে দুপুরে ব্রেক । মজাদার স্বাদের (আয়ুর্বেদিক) খিচুরি খাওয়ানো হল। ৪০ জনের উপর এই কোর্সে অংশগ্রহণ করে। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে এই কলেজের অনুষ্ঠানে কলেজের অধ্যক্ষ, শিক্ষক ও শিক্ষিকা গণ, ছাত্র-ছাত্রী বৃন্দ,  অন্যান্য পেশাজীবীর লোক উপস্থিত ছিলেন। প্রতি সেশনের ফি ছিল মাত্র ২০০/- ।

৩১ অক্টোবর সেশনে বক্তব্য রাখেন জনাব মখলেছ, অধ্যক্ষ জনাব মামুন মিয়া । প্রথম সেশন পরিচালনা করেন জনাব ফাতেমা আক্তার, জনাব বিপুল চন্দ্র রায় এবং শেষ সেশনে অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ বিশিষ্ট  আয়ুর্বেদজ্ঞ জনাব ইকবাল কবির ।

বক্তাদের বক্তব্য থেকে আয়ুর্বেদ, বর্তমান সমাজ ও শিক্ষা, চিকিৎসা সম্পর্কে বিভিন্ন আক্ষেপ, আশা – হতাশা, প্রয়োজনীয়তার বিষয়গুলি উঠে আসে । যেমন ; () বাংলাদেশে আয়ুর্বেদের অবস্থান সূর্যের আলোর মত দীপ্ত থাকার কথা, কিন্তু প্রদীপের আলোর মত জ্বলে বেঁচে আছে () আয়ুর্বেদ কোন নির্দিষ্ট ধর্মের লোকেদের জন্য নয়, এটা মানুষের জন্য () তিসি এবং রসুন একত্রে খেলে খারাপ কোলেস্টেরল, উচ্চ রক্তচাপের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায় () উদ্ভিজ প্রোটিন গ্রহণ আমাদের নীরোগ স্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু লাভে সাহায্য করে () GMO food আমাদের Immune system –কে দুর্বল করে দিচ্ছে ()   পঞ্চমহাভূত (পৃথিবী, জল, অগ্নি, বায়ু, আকাশ ) এবং ত্রিদোষ (বায়ু, পিত্ত, কফ) –এর সমন্বয়হীনতার কারণে আমাদের দেহ ও মন অসুস্থ হয় () taught concept থেকে আমাদের বের হয়ে আসতে হবে, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বাঁচাতে হবে

() শুধুমাত্র certificate পাবার জন্য পড়াশুনা আমাদের আরও ক্ষতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে () প্রচুর certificate ধারি পাওয়া যাচ্ছে, কিন্তু মানুষ নয় () বর্তমান শিক্ষা বাবস্থা বাচ্চাদের স্বতঃস্ফূর্ততা নষ্ট করে দিচ্ছে () রাগ, লোভ ও ভয়কে জয় করতে হবে, তবেই মানসিক বিশুদ্ধতা আসবে () তিন বেলা খাওয়ার সময় – সকাল ৭ টা, দুপুর ১২ টা এবং রাত ৮ টা – এই সময় ধরে খেলে হজম সমস্যা, ওজন বৃদ্ধি ইত্যাদি থেকে মুক্তি পাওয়া যায় (এটা অসুস্থদের জন্য নয়) () আয়ুর্বেদ একটি সম্পূর্ণ জীবন বিধান () এলোপ্যাথি ওষুধ খাবার সময় সতর্ক থাকতে হবে () এলোপ্যাথিতে   () আয়ুর্বেদ technique নির্ভর নয়, এটা সম্পূর্ণভাবে নিজের উপলব্ধির ব্যাপার । নিজে উপলব্ধি করতে পারলে আয়ুর্বেদ বুঝা যায় । নিজেকে আগে বুঝতে হবে, আত্মজ্ঞানী হতে হবে ()  বেশির ভাগ মানুষ মানসিক ভাবে পশু স্তরে নেমে গেছে বা পশুদের স্বভাবের () ময়লা, বস্তা-পচা শিক্ষাকে ঝেড়ে ফেলতে হবে () অন্ন মায়া, প্রান মায়া, মন মায়া, বিজ্ঞান মায়া এবং আনন্দ মায়া – এই ৫ টি মায়াকে নিয়ে আমাদের স্বত্বা গঠিত () সাত্ত্বিক খাবার আমাদের জন্য খুব উপকারী () ভুল খাবার এবং ভুল আবেগের কারণে রোগ হয় । () আয়ুর্বেদ চিকিৎসার অবস্থান হওয়া উচিত ছিল প্রথম সারিতে কিন্তু?????? ()  —এরকম আরও নানাবিধ আলোচনা বক্তাদের কথায় ফুটে উঠেছে ।

 

এমন একটি সুন্দর, পরিপাটি, আকর্ষণীয়, তথ্যবহুল এবং আশা সৃষ্টিকারী অনুষ্ঠানের জন্য কলেজের অধ্যক্ষ জনাব মামুন মিয়াকে অসংখ্য  ধন্যবাদ । এমন ধরনের অনুষ্ঠান উনি আরও আয়োজন করবেন বলে আশা করেন। আয়ুর্বেদের প্রতিষ্ঠার জন্য আমাদের পূর্ব পুরুষেরা অনেক কাজ করে গেছেন। এখন আমাদের পালা । তবেই সমাজ ও দেশের উপকার করা যাবে।

Related posts