November 19, 2018

‘আসল সত্যটা তারা জানে না’

Captureস্পোর্টস ডেস্ক:: দল বা একাদশ নির্বাচনে কোচের সঙ্গে মাশরাফির মতপার্থক্যের গুঞ্জন আগে থেকেই ছিল। কিন্তু হুট করে টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরের ঘোষণার পর কোচের সঙ্গে শীতল সম্পর্কের ব্যাপার পরিষ্কার হয়ে যায়। ক্রিকেট পাড়ায় হাতুরুসিংহ-মাশরাফির ভিতর ভিতর ঠাণ্ডা সম্পর্কের গুজব এখনও অব্যাহত। তবে সত্যি হোক বা মিথ্যে হোক, সেই গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন খোদ মাশরাফি।

ভারত ভিত্তিক ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে মাশরাফি বলেন,‘ আমি মনে করি, আমাদের মধ্যে চমৎকার বোঝাপড়া রয়েছে। আমরা একে অপরকে ভালো জানি। যখন আপনি দীর্ঘ সময় কাজ করবেন তখন কিছু বিষয়ে অমুমান নির্ভর কর্থাবার্তা সাধারণত ওঠেই। আমাদের বেলাতেও হয়তো সেটা হয়েছে। যখন কোনো ঘটনা ঘটে তখন শোনা যায় যে, তাদের মধ্যে ভালো বোঝাপড়া নেই। এমন পরিস্থিতিতে অনেকে মন্তব্য করে বসেন। এবং এ ধরনের অনুমান নির্ভর মন্তব্য করা বেশ সহজ। এদের থামানো কঠিন। কারণ তারা আসল সত্যটা জানে না। আসলে আপনি যখন দীর্ঘ সময় কারো সঙ্গে চলবেন, স্বাভাবিকভাবে সম্পর্কের ওঠো নামা হবেই। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, একে অপরের প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস। এমনও ঘটনা আছে যেটা আমি সিদ্ধান্ত নিতে চেয়েছি কিন্তু এতে হয়তো কোচের সম্মতি ছিল না। কিন্তু তিনি আমাকে বাঁধা দেননি। এবং ফল উল্টো হওয়ার পরও তিনি একটা শব্দও উচ্চারণ করেননি। আমরা আসলে একে অপরকে দোষারোপ করি না। সম্ভবত এ কারণেই আমরা সফল।’

কোচের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মাশরাফি আরো বলেন, ‘আমাদের মধ্যে কোনো ব্যক্তিগত বিবাদ নেই। কারণ আমরা একসঙ্গে বসবাস করি না। আমরা অভিন্ন একটা লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি। এবং সেটা হলো, বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া, সফলতা এনে দেওয়া। তাই আমাদের মধ্যে খারাপ সম্পর্ক থাকাও উচিৎ নয়। তাই আমাদের মধ্যে খারাপ সম্পর্ক- এমন গুজব আদৌ সঠিক নয়।’

কোচ হাথুরুসিংহের প্রশংসা করে মাশরাফি বলেন,‘ তার একটা জিনিস খুব ভালো লাগে যে, যা বলেন সবার সামনে বলেন। এবং মতামত উন্মূক্ত করে দেন। এটা খুব ভালো দিক। এতে একে অপরকে ভালোভাবে বোঝা সহজ হয়। আমাদের ভুল হতেই পারে। কিন্তু আমরা একে অপরকে কোনোভাবেই দোষারোপ করি না। তিনি দলের মঙ্গলের জন্য পরিকল্পনা করেন। এবং তার প্রতি পুরো দলের বিশ্বাস ও আস্থা রয়েছে।’

Related posts