September 19, 2018

আ’লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, পুলিসসহ আহত ২০

388
জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ  ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার শেরপুর গ্রামে আজ সকালে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে ৩ পুলিশসহ ২০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় বাড়ি ভাঙচুর ও একট পোল্ট্রি খামার লুট করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ২১ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছোড়ে।

ঝিনাইদহের শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তোজাম্মেল হক জানান, উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের শেরপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা তোবারক শেখ ও মাখন হোসেনের মধ্যে জমি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে সকাল ৯টার দিকে উভয় গ্রুপের কর্মী সমর্থকরা অস্ত্র-সস্ত্র ঢাল, ফালা, রাম দা, বল্লম ও লাঠিশোটা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

তিনি জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ২১ রাউন্ড রাবার ও শর্টগানের ফাঁকা গুলি ছোড়ে। সংঘর্ষ চলাকালে এএসআই সুনীল, কনস্টেবল মনজিল, কনস্টেবল মইন, কনস্টেবল মাজহার এবং গ্রামবাসীর মধ্যে শাহাদ হোসেন, জহুরা খাতুন, লিলি বেগম, সখেলা খাতুন, শাহেব আলী, আনোয়ার হোসেন, সাবু, আব্দুল আলীমসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন।

সংঘর্ষের সময় শেরপুর গ্রামের মনোয়ার হোসেন, উম্মাদ, শরিফুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেনসহ ৬ জনের বাড়ি ভাঙচুর ও একটি পোল্ট্রি খামার লুট হয়েছে বলে জানান ওসি মো. তোজাম্মেল হক ।

আহতদের ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে আনোয়ার হোসেনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি। ঝিনাইদহের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) গোপিনাথ কানজিলাল জানান, সংঘর্ষ এড়াতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts