September 24, 2018

আলমডাঙ্গায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংতায় আহত ৫

শামসুজ্জোহা পলাশ
চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ  নির্বাচনে পরাজিত হওয়াকে কেন্দ্র করে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার গাংনী ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পরাজিত চেয়ারম্যান  প্রার্থীর  ৫ জন সমর্থককে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করেছে জামায়াত প্রার্থীর সমর্থকের লোকজন। সোমবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে শালিখা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- মিলন, তোতা, রশিদ, আশাদুল ও হাশেম। আহতদেরকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার শালিখা গ্রামে নির্বাচনে পরাজিত হওয়াকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী রকিবুল ইসলামের সমর্থক মিলন, তোত ও রশিদের সঙ্গে একই গ্রামের জামায়াত ইসলামের পরাজিত চেয়াম্যান প্রার্থীর সমর্থক নাজমুল ও রানার সঙ্গে কথাকাটা কাটি হয়। এর এক পর্যায়ে জামায়াত ইসলাম প্রার্থীর সমর্থকরা আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থক শাহাবুলের ছেলে মিলন, আশাদুলের ছেলে তোতা, আরশেদ আলীর ছেলে রশিদ, আশাদুল ও রহিমের ছেলে হাশেমকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে। তাদেরকে রাতেই উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী রকিবুল ইসলাম জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে জামায়াত প্রার্থীর নাজমুল, রানা ও হাসিনসহ ১০-১২ জন এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মেহেদী রাসেল জানান, আমি ঘটনাটি শুনেছি অভিযোগ এলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গত ৯ মে উভয় প্রার্থীদের সঙ্গে বসে আলোচনা করে সহিংসতা বন্ধে পরামর্শ দিই বলেও তিনি জানান।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/১৭ মে ২০১৬

Related posts