September 23, 2018

আর কত ধাপ পর সুষ্ঠু নির্বাচন?

ঢাকাঃ  ইউপি নির্বাচন শেষ হওয়ার পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বলেন, আগামি ধাপে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে। একে একে চতুর্থ ধাপের নির্বাচন শেষ হয়েছে। কোন নির্বাচনই নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু করতে পারেনি বলেছেন রাজনৈতিক দলের নেতারা।

এ প্রসঙ্গে মাহবুবউল আলম হানিফ গণমাধ্যমকে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কোনও রকম অনিয়ম, ক্রটি দেখতে চান না। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সহযোগিতা করতে ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের কাছে নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। ওই নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, বিশৃঙ্খলার অভিযোগ পাওয়া গেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আওয়ামী লীগ নেতাদের নির্দেশ ও উপেক্ষিত হয়েছে।

বর্তমান নির্বাচন কমিশন (ইসি) আজিজ কমিশনের চেয়েও খারাপ বলে মন্তব্য করেছেন সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার। তিনি বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে আয়োজনের ক্ষেত্রে কমিশন পুরোপরি ব্যর্থ। প্রমাণ হয়ে গেছে, তাদের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। তাই ব্যর্থতার দায় নিয়েই তাদের সরে দাঁড়ানো উচিত। ২০ এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে শনিবার ইউপি নির্বাচনে ৯ জনের প্রাণ গেছে। এ পর্যন্ত চার ধাপে ৫৮ জনেরও বেশি প্রাণ হারিয়েছে নির্বাচনী সহিংসতায়। চতুর্থ ধাপেও আগেও মতোই কেন্দ্র দখল, ব্যালট পেপার ছিনতাই, আগের দিনে সিল মেরে বাক্স ভরা, হতাহতের ঘটনার মধ্য দিয়েই শেষ হয়েছে।

এরপরও প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ বলেছেন, ‘এ ধাপেও কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ও দুঃখজনক ঘটনা ঘটেছে। তবে ভোটে অনিয়ম হওয়ায় তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ব্যবস্থার কারণে সহিংসতা ও গোলযোগের ঘটনা কিছুটা কমেছে। আশা করি, আগামী ধাপে অনিয়ম ছাড়াই শান্তিপূর্ণ ভোট হবে।’

শনিবার সন্ধ্যায় ইসি সচিবালয়ের মিডিয়া সেন্টারে চতুর্থ ধাপের ভোট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ভোটে গোলযোগ-সহিংসতা কোনোভাবে কাম্য নয় মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘আজ যেসব ঘটনা ঘটেছে তা বিশ্লেষণ করলে মনে হয় না-আমরা আগের তুলনায় পিছিয়েছি। বরং গোলযোগ কমে এসেছে। প্রতিদ্বন্দ্বিপ্রার্থী ও সমর্থকদের বলছি- ধৈর্য ধরেন। কারো মাথায় বাড়ি মেরে বা নিজেদের মধ্যে হানাহানির প্রয়োজন নেই। আইনের আশ্রয় নেয়ার সুযোগ আছে।’

‘অনিয়ম-সহিংসতায় ইসি নির্লিপ্ত ভূমিকা পালন করছে’ বিএনপি ও অন্যান্য মহলের এমন অভিযোগের জবাবে সিইসি বলেন, ‘আমরা মোটেও নির্লিপ্ত নই। কেউ অনিয়ম করে পার পাবে না। সহিংসতার ঘটনা যেখানে ঘটছে মামলা করা হচ্ছে, অনেককে ধরা হচ্ছে। যেখানেই অনিয়ম হয়েছে সেখানেই তদন্ত করে বিচারের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ারও নির্দেশ দিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘ভোটের সময় তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়ার কারণে আগের তুলনায় চতুর্থ ধাপে সহিংসতা ও গোলযোগ কিছুটা কম হয়েছে। এছাড়া, অনিয়ম ও নিয়ন্ত্রণ বহির্ভূত হওয়ায় ৫১টি ভোটকেন্দ্রের ভোট বন্ধ করা হয়েছে। আরও প্রতিবেদন এলে এ সংখ্যা বাড়বে। আইন শৃঙ্খলাবাহিনী এখনো মাঠে আছে। ভোট পরবর্তী সহিংসতাও যাতে না ঘটে সে বিষয়ে সজাগ আছি। আশা করছি, আগামীতে অনিয়ম ছাড়াই শান্তিপূর্ণ ভোট করতে সব ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সিইসি জানান, ব্যাপক ভোটার উপস্থিতি ছিল এ ধাপেও। পরবর্তী দুই ধাপের ভোটেও স্বতস্ফূর্তভাবে ভোটাররা কেন্দ্রে যাবেন বলে আশা করছেন সিইসি।

সরকারের সমালোচনা করে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ বলেছেন, বর্তমানে দেশের সবচেয়ে সস্তা জিনিস হচ্ছে মানুষের জীবন। এই মৃত্যুর মিছিল কবে যে শেষ হবে! মানিকগঞ্জ জেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।আস

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/৮ মে ২০১৬

Related posts