September 20, 2018

আব্দুল করিম উৎসব ও সিতারা বৈশাখী মেলার প্রস্তুতি সম্পন্ন

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বিশেষ সংবাদদাতাঃ   বাংলা নতুন বছর ১৪২৩ উপলক্ষ্যে জ্যামাইকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটি (জেবিএফএস) আয়োজিত চলতি বছরের ‘বাউল শাহ আব্দুল করিম উৎসব ও সিতারা বৈশাখী মেলা’র প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

উল্লেখ্য, এই মেলার টাইটেল স্পন্সর সিতারা ফ্যাশন বুটিক আর গ্র্যান্ড স্পন্সর হচ্ছেন বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর ও সমাজসেবী মো: আনোয়ার হোসেন। আগামী ১৭ এপ্রিল রোববার জ্যামাইকার হিলসাইড অ্যাভিনিউস্থ সুসান বি. এন্থনী স্কুলে দিনব্যাপী এই উৎসব ও মেলা অনুষ্ঠিত হবে। মেলায় বাংলাদেশের কিংবদন্তী বাউল সম্রাট প্রয়াত শাহ আব্দুল করিমকে তুলে ধরার বিশেষ উদ্যোগ নেয়ার পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের মাঝে বাংলা শিল্প-সংস্কৃতি তুলে ধরা হবে।

শাহ আব্দুল করিম উৎসব ও সিতারা বৈশাখী মেলার প্রস্তুতি সম্পর্কে আয়োজিক এক সাংবাদিক সম্মেলনে জেবিএফএস ও মেলা কমিটির কর্মকর্তারা উপরোক্ত তথ্য জানান। জ্যামাইকার হিলসাইড এভিনিউস্থ স্টার কাবাব এন্ড চাইনিজ রেষ্টুরেন্টে ১০ এপ্রিল রোববার দুপুরে আয়োজিত জনাকীর্ণ এই সাংবাদিক সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন সোসাইটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম। সাংবাদিক সম্মেলনের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এবং কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেন জেবিএসএফ’র সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আজাদ ভূঁইয়া। উৎসব ও মেলা সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন মেলা কমিটির আহ্বায়ক  ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার ও সদস্য সচিব রিজু মোহাম্মদ।

সাংবাদিক সম্মেলনে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন  ফ্রেন্ডস সোসাইটির প্রধান উপদেষ্টা এবিএম ওসমান গণি ও মেলা কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী রেজাউল করীম চৌধুরী। এসময় সংগঠনের উপদেষ্টা যথাক্রমে নাসির আলী খান পল, সরাফ সরকার, ছদরুন নূর, মনজুর আহমেদ চৌধুরী, অধ্যাপিকা হুসনে আরা বেগম, ডা. টমাস দুলু রায়, এবিএম সালাহউদ্দিন আহমেদ, মোহাম্মদ শাহ নেওয়াজ ও ফারুক হোসেন তালুকদার এবং স্মারক গ্রন্থ ‘বসন্ত বাতাসে’-এর সম্পাদক সাংবাদিক শহীদুল ইসলাম ছাড়াও অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিক সম্মেলন কর্মকর্তাদের সাথে মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন এবারের উৎসব ও মেলার গ্র্যান্ড স্পন্সর বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ইনভেন্টর ও সমাজসেবী  আনোয়ার হোসেন এবং টাইটেল স্পন্সর লাক্সারী ফ্যাশন বুটিক সিতারা’র অন্যতম কর্ণধার লিটন হুদা ও সমন্বয়কারী মনির হোসেন। এছাড়াও আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান, সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম-এর ইসি কমিটির সদস্য এবং বারডেম হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট প্রফেসর ডা. এম এ সালাম খান ও গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সচিব হারুন অর রশিদ ও পৃষ্ঠপোষক পরেশ সাহা।

সাংবাদিক সম্মেলনে উৎসব ও মেলা কমিটির সদস্য সচিব রিজু মোহাম্মদ বলেন, মেলার সকল প্রস্তুতি ৯৯% সম্পন্ন হয়েছে। উৎসবের সাংস্কৃতিক পর্বে বাংলাদেশের জনপ্রিয় ফোক সঙ্গীত শিল্পী শাহনাজ বেলীর উপস্থিতি নিশ্চিত করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে দেশ ও উত্তর আমেরিকার জনপ্রিয় শিল্পসহ শ্রী চিন্ময় শিল্পী গোষ্ঠী সহ প্রবাসের জনপ্রিয় সাংস্কৃতিক সংগঠন জ্যামাইকা থিয়েটার, সঙ্গীত পরিষদ, সুর-ছন্দ, সুরবাহার, স্বরলিপি সঙ্গীত বিদ্যালয়ের শিল্পীরা সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করবেন। অনুষ্ঠানমালার মধ্যে আরো থাকবে ফ্যাশন শো, র‌্যাফেল ড্র প্রভৃতি। আরো থাকবে রকমারী স্টল। মেলা উপলক্ষে প্রায় ৩০০ পৃষ্ঠার স্মারক গ্রন্থ ‘বসন্ত বাতাসে’ প্রকাশিত হবে।

সাংবাদিক সম্মেলনে উৎসব ও মেলা কমিটির আহ্বায়ক  ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার বলেন, ‘বাউল শাহ আব্দুল করিম উৎসব ও সিতারা বৈশাখী মেলা-১৪২৩’ অনুষ্ঠানে দেশের খ্যাতিমান লোকজ গানের সাধক শাহ আব্দুল করিম সহ দেশীয় শিল্প-সঙ্কৃতি তুলে ধরা হবে। তিনি বলেন, আমরা আশা করছি সবার সহযোগিতায় সুন্দর পরিপাটি মেলা উপহার দেয়া সম্ভব হবে। তিনি বলেন, নিউইয়র্ক স্টেট গভর্নর এন্ড্রু ক্যুমো, মেয়র বিল ডি ব্লাজিও, কংগ্রেসওমেন গ্রেস মেং, বরো প্রেসিডেন্ট মেলিন্ডা কাটজ সহ যুক্তরাষ্ট্রের মূলধারার অনেকেই এ অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন অথবা তাদের প্রতিনিধি উপস্থিত থাকবেন।

দেলোয়ার বলেন, অনুষ্ঠানের দিন ‘বাউল শাহ আব্দুল করিম উৎসব ও সিতারা বৈশাখী মেলা-১৪২৩’র প্যারেড ও পান্তা ইলিশ পরিবেশন উদ্বোধন করবেন পৃষ্ঠপোষক মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। শাহ আব্দুল করিম উৎসবের উদ্বোধন করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ড. দেলোয়ার হোসেন। এছাড়া বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করবেন ইউএস সুপ্রীম কোর্টের এটর্নী ও বাংলাদেশ সোসাইটির ট্রাষ্টি বোর্ড সদস্য মঈন চৌধুরী। প্যারেডে গ্র্যান্ড মার্শাল থাকবেন কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট এডভোকেট এন মজুমদার।

দেলোয়ার জানান, অনুষ্ঠানে শিশু-কিশোর-কিশোরীদের বিনোদনের জন্য পৃথক ব্যবস্থার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। মেলার দিন বেলা ১২টা থেকে এক টা পর্যন্ত স্থানীয় হাইল্যান্ড এভিনিউস্থ ক্যাপ্টেন টিলি পার্কে প্রবাসীদের জন্য পান্তা-ইলিশ আর ভর্তা ভাতের ব্যবস্থা থাকবে। এরপর আয়োজিত হবে বর্ণাঢ্য র‌্যালী, র‌্যালী শেষ হবে হিলসাইড এভিনিউ ও ১৭৫ স্ট্রীট সংলগ্ন পার্কে। র‌্যালী শেষে সুসান বি এন্থনী স্কুলে পরিবেশিত হবে মূল অনুষ্ঠান। এবারের উৎসব ও মেলার বাজেট ধরা হয়েছে ৪০ হাজার ডলার। মেলা থেকে উদ্বৃত্ত অর্থ সংগঠনের কাজে ব্যয় এবং বাউল শাহ আব্দুল করিমের পরিবারকে সহায়তার জন্য প্রদান করা হবে।

দেলোয়ার-রিজু নিউইয়র্কে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিতব্য ‘বাউল শাহ আব্দুল করিম উৎসব’ ও সিতারা বৈশাখী মেলা-১৪২৩ অনুষ্ঠান সফল করার জন্য জেবিএফএস’র কর্মকর্তা ও মেলা কমিটির কর্মকর্তাদের সার্বিক সহযোগিতা এবং প্রবাসীদের উপস্থিতি কামনা করেন।

পরে জেবিএফএস ও মেলা কমিটির কর্মকর্তা সহ সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা এবিএম ওসমান গণি এবং মেলা কমিটির সিনিয়র নির্বাহী যুগ্ম আহ্বায়ক বিলাল চৌধুরী উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে জেবিএফএস’র উল্লেখযোগ্য কর্মকর্তাদের মধ্যে সৈয়দ আতিকুর রহমান, শেখ হায়দার আলী, এএফ মিসবাহউজ্জামান, শেখ আনসার আলী, সেবুল মিয়া, একেএম সফিকুল ইসলাম, ইফজাল আহমেদ চৌধুরী, এডভোকেট কামরুজ্জামান বাবু, সহদেব তালুকদার, গোলাম আজম রকি, আফরোজা রোজী,  কবীর হোসেন মুন্সী, মোহাম্মদ লিটন আহমেদ, আব্দুল মন্নাফ তালুকদার, দরুদ মিয়া রনেল, মাহবুবুল হক মোকাদ্দেস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/১২ এপ্রিল ২০১৬/রিপন ডেরি

Related posts