September 19, 2018

আবারও খনি বিরোধী আন্দোলনের পক্ষেই জনতার রায়

মোঃ মেহেদী হাসান উজ্জল,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ   দিনাজপুরের ফুলবাড়ী পৌর নির্বাচনে খনি আন্দোলনের পক্ষে আবারও রায় দিয়েছে সাধারণ জনতা। পৌর নির্বাচনে খনি বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম নেতা সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠনের আহবায়ক বর্তমান মেয়র মুরতুজা সরকার মানিক স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে ৬৪৩৩ ভোট পেয়ে পুনরায় বেসরকারি নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী শাহাজাহান আলী সরকার পুতু নৌকা মার্কা নিয়ে ৪৭৯১ ভোট পেয়েছেন এবং বিএনপি’র মনোনিত প্রার্থী সাহাদৎ আলী সাহাজুল ধানের শীষ মার্কা নিয়ে ৪০৭৬ ভোট পেয়ে ৩য় স্থান অধিকার করেছেন।

এছাড়াও অপর প্রতিদ্বন্দি তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখার আহবায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল চামুচ মার্কা নিয়ে ২০৫৮ ভোট পেয়েছেন। জামায়াতে ইসলামের মনোনীত প্রার্থী থানা জামায়াতের আমির জয়নাল আবেদীন জগ মার্কা নিয়ে ৯৫২ ভোট পেয়েছেন। সিপিবি’র মনোনিত প্রার্থী এসএম নুরুজ্জামান কাস্তে মার্কা নিয়ে ৪৬৯ ভোট পেয়েছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী দলিল লেখক আল আমিন সরকার ক্যারাম বোর্ড মার্কা নিয়ে ৪১২ ভোট পেয়েছেন। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সদ্য বহিস্কৃত যুবলীগের সভাপতি ও প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী এ্যাড. মোস্তাফিজুর রহমানের ছোট ভাই খাজা মইনুদ্দিন মোবাইল ফোন মার্কা নিয়ে ২৯৯ ভোট পেয়েছেন। জাতীয় পার্টির প্রার্থী জামিল উদ্দিন লাঙ্গল মার্কা নিয়ে মাত্র ৩০ ভোট পেয়ে শোচনীয়ভাবে পরাজিত হয়েছেন।

অপর দিকে সাধারণ ১নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে শ্রী হারান দত্ত টেবিল ল্যাম্প মার্কা নিয়ে ১০২৬ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বর্তমান কাউন্সিলর মেহেদুল সরকার, পাঞ্জাবী মার্কা নিয়ে ৫৬৮ ভোট পেয়েছেন। ২নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর ময়েজ উদ্দিন মন্ডল টেবিল ল্যাম্প মার্কা নিয়ে ৭৮৬ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি মাজেদুর রহমান পানির বোতল মার্কা নিয়ে ৬৮৫ ভোট পেয়েছেন। ৩নং ওয়ার্ডে গোলাম মোস্তফা ৪৫৫ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বর্তমান কাউন্সিলর সেকেন্দার আলী দুলাল পানির বোতল মার্কা নিয়ে ৪৪৬ ভোট পেয়েছেন। ৪নং ওয়ার্ডে মামুনুর রশিদ ডালিম মার্কা নিয়ে ৭৪২ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি মিজানুর রহমান উট পাখি মার্কা নিয়ে ৫৩৭ ভোট পেয়েছেন। ৫নং ওয়ার্ডে মোতালেব হোসেন টেবিল ল্যাম্প মার্কা নিয়ে ৯০৩ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদদ্বন্দি বর্তমান কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম উটপাখি মার্কা নিয়ে ৮১৩ ভোট পেয়েছেন। ৬নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর ডালিম মার্কা নিয়ে ৮৩২ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি আব্দুল লতিফ বাবু উট পাখি মার্কা নিয়ে ৬৪৪ ভোট পেয়েছেন। ৭নং ওয়ার্ডে সৈয়দ আবুল ফরহাদ বাবু উট পাখি মার্কা নিয়ে ১০১৯ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি জিতেন্দ্রনাথ বর্মন ডালিম মার্কা নিয়ে ৬৭২ ভোট পেয়েছেন।

৮নং ওয়ার্ডে আব্দুল জব্বার মাসুদ রানা টেবিল ল্যাম্প মার্কা নিয়ে ৬২৯ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বর্তমান কাউন্সিলর জয়প্রকাশ নারায়ণ ডালিম মার্কা নিয়ে ৫৩৫ ভোট পেয়েছেন। ৯নং ওয়ার্ডে গোলাফফর হোসেন উটপাখি মার্কা নিয়ে ১০২১ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি আতাউর রহমান ডালিম মার্কা নিয়ে ৭৮৬ ভোট পেয়েছেন। এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১নং সংরক্ষিত আসনে রোকেয়া বেগম চকলেট মার্কা নিয়ে ১৮২৮ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বর্তমান কাউন্সিলর তঞ্জুয়ারা বেগম গ্যাসের চুলা মার্কা নিয়ে ১২৪০ ভোট পেয়েছেন। ২নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে মোছাঃ নাজিরা বেগম আঙ্গুর মার্কা নিয়ে ২২২৭ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বর্তমান কাউন্সিলর বাবলী আরা কাচি মার্কা নিয়ে ২২২৪ ভোট পেয়েছেন। ৩নং সংরক্ষিত আসনে মোছাঃ ছানোয়ারা খাতুন মৌমাছি মার্কা নিয়ে ১৯৩৯ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বর্তমান কাউন্সিলর ঊর্মিলা গুপ্তা ভ্যানিটি ব্যাগ মার্কা নিয়ে ১৫৭৯ ভোট পেয়েছেন।

ফুলবাড়ী পৌরসভায় ২৪৪০৯ ভোটারের বিপরীতে মেয়র পদে ৯জন সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৪২জন ও সংরক্ষিত আসনে মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৬ প্রতিদ্বন্দির প্রতিদ্বন্দ্বিতার  মধ্যে ১৯৮৯৭ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে।  প্রাপ্ত ভোটের মধ্যে ৩৩৭টি ভোট বাতিল বলে গণ্য করা হয়েছে। এছাড়া প্রার্থীরা ১৯৫২০ ভাগাভাগি করে পেয়েছেন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts