November 17, 2018

‘আপনারা কি দেশটাকে রামরাজ্য বানাতে চান?’

ঢাকাঃ  সম্প্রতি ঢাকা ভার্সিটিতে হিজাব পরার কারণে ক্লাশ থেকে এক ছাত্রীকে বের করে দেয়া প্রফেসর ড. আজীজুর রহমান ব্রক্ষ্মন্যবাদীদের দালাল ও বেঈমান বলে মন্তব্য করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নায়েবে আমীর ও ঢাকা মহানগর আহবায়ক আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী।

আজ জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মিলনায়তনে হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরীর এক জরুরী সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এই মন্তব্য করেন।

আল্লামা কাসেমী বলেন, দেশের সর্বত্র যখন অস্থিরতা চলছে, দেশপ্রেমিক দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গ প্রশাসনের কর্মকর্তারা যখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সাধ্যানুযায়ী চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। সে মুহুর্তে দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা ইউনিভার্সিটি যেখানে শিক্ষার্থীদের পোষাকের ক্ষেত্রে কোন বিধি নিষেধ নেই, সেখানে প্রপেসর ড. আজীজুর রহমান যিনি নাস্তিক মুরতাদদের দালাল হিসাবে পূর্ব পরিচিত, তিনি ৯২% মুসলমানের দেশে কোন খুটির জোরে, কাকে খুশি করার জন্য এক জন হিজাব পরিহিতা মেধাবী ছাত্রীকে ক্লাশরূম থেকে বের করে দিলেন! শুধু তাই নয়, যেসব সহপাটি প্রতিবাদ করল, তাদেরকে ও বের করে দিলেন। ইহা কি সংবিধান বিরোধী ও মানবতা বিরোধী আচরণ নয়?

তিনি বলেন, দেশবাসী জানতে চায়, আপনারা কি দেশটাকে রামরাজ্য বানাতে চান? আমরা এদেশে বহু ধর্ম ও মতের মানুষ শান্তি-শৃংখলার পরিবেশে সহঅবস্থানে বিশ্বাসী এবং অধিকাল থেকে অভ্যস্থ। শান্তির পরিবেশে অশান্তি সৃষ্টি করার চেষ্টা করবেন না। আমরা পরিষ্কার বলে দিতে চাই, পীর আউলিয়ার এ দেশে মুসলিম ঐহিত্য ও ইসলামিক কৃষ্টিকালচার ভালো না লাগলে তাসলিমা নাসরিনের মতো যেখানে ভালো লাগে সেখানে চলে যান।

দেশবাশী ইসলামী তাহযীব-তামাদ্দুন ও শরয়ী বিধি-বিধান নিয়ে উপহাস আর অপমমানজনক আচরন সহ্য করবে না।

তিনি বলেন, নাস্তিকদের প্রেতাত্মা ড. আজীজুর রহমানকে জাতীর সামনে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। নতুবা অমার্জনীয় অপরাধের কারনে অভিলম্বে তাকে শিক্ষকতার পদ থেকে বহিষ্কার করতে হবে। অন্যথায় শেয়ারে ইসলামের প্রতি শ্রদ্ধাশীল দলমত নির্বিশেষে সর্বশ্রেণীর মানুষ মা-বোনদের ইজ্জত রক্ষার্থে রাজপথে নেমে আসতে বাধ্য হবে।

সভায় যারা বক্তব্য রাখেন, মহানগরী যুগ্ম আহবায়ক মাওলানা আবুল কালাম, হাফেজ মাওলানা আতাউল্লাহ হাফিজ্জী, মাওলানা জহীরুল হক ভূইয়া, ড. আহমদ আব্দুল কাদের, মাওলানা আবু জাফর কাসেমী, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, যুগ্ম সদস্যসচিব মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, মাওলানা বাহাউদ্দিন যাকারিয়া, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, আতীকুজ্জামান, মুফতী ফখরুল ইসলাম, মাওলানা ফয়সাল আহমদ মাওলানা শরীফুল্লাহ ও মাওলানা হাবীবুল্লাহ ইসলামপুরী প্রমুখ।ইনসাফ

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/১ মে ২০১৬

Related posts