September 20, 2018

আনুষ্ঠানিকভাবে নিষিদ্ধ প্রসূন

প্রসূন

শুটিং ইউনিটে কথা-কাটাকাটি, পাল্টাপাল্টি স্ট্যাটাস, অভিযোগ দাখিল, গণমাধ্যমের সংবাদ—সবকিছুর অবসান হলো এক বছরের নিষিদ্ধ হওয়ার সংবাদে। অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনটি সংগঠন একযোগে নিষিদ্ধ করল অভিনয়শিল্পী প্রসূন আজাদকে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়া গেছে এ তথ্য। যদিও কয়েক দিন আগেই প্রথম আলো প্রসূনের নিষিদ্ধ হওয়ার ব্যাপারে আগাম সংবাদ প্রকাশ করেছিল।
ডিরেক্টরস গিল্ডের পক্ষ থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনটি সংগঠনের প্রধান ব্যক্তিদের স্বাক্ষর রয়েছে। এই সংগঠনের সভাপতি গাজী রাকায়েত, সাধারণ সম্পাদক এস এ হক অলিক, টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মামুনুর রশীদ ও সাধারণ সম্পাদক মনোয়ার পাঠান, অভিনয়শিল্পী সংঘের আহসান হাবীব নাসিমের স্বাক্ষর রয়েছে। নিশ্চিত হওয়া গেছে এই তিন সংগঠন মিলে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
বলে রাখা ভালো, ‘স্বপ্ন সত্যি হতে পারে’ নামের একটি নাটকের শুটিংকে কেন্দ্র করে নির্মাতা ও প্রযোজক রোকেয়া প্রাচীর সঙ্গে অভিনেত্রী প্রসূন আজাদের কথা-কাটাকাটি হয়। পরে দুজনই পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে। এর জের ধরে প্রসূন আজাদের বিরুদ্ধে ১৯ অক্টোবর রোকেয়া প্রাচী অভিযোগ করেন নাটকের তিন সংগঠনের কাছে। তারপরই কারণ দর্শানোর নোটিশ যায় প্রসূন আজাদের কাছে। তিন দিনের মধ্যে চিঠির জবাব দিতে বলা হলেও প্রসূন কোনো জবাব দেননি। তারপরই তিন সংগঠন মিলে এ সিদ্ধান্ত নেয়।

Related posts