September 18, 2018

‘আত্মঘাতী বিস্ফোরণে’ নিহতদের চারজনই শিশু

mouমৌলভীবাজা: বাংলাদেশে মৌলভীবাজার জেলার ফতেহপুরে ‘জঙ্গি আস্তানা’ থেকে ছিন্নভিন্ন অবস্থায় যে ‘সাত/আটজনের’ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছিলো তাদের চারটিই অল্পবয়সী শিশু।

এসব মৃতদেহ পরীক্ষা করে দেখার পর স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, এসব শিশুর বয়স কয়েক মাস থেকে ১০ বছর পর্যন্ত।

মৌলভীবাজারের সিভিল সার্জন সত্যকাম চক্রবর্তী মৃতদেহগুলোর ময়নাতদন্ত শেষে বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, বোমা বিস্ফোরণেই এদের মৃত্যু হয়েছে বলে তারা ধারণা করছেন।

পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম বৃহস্পতিবার জানিয়েছিলেন, ওই বাড়িতে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে অন্তত ৭ থেকে ৮ জন জঙ্গি নিহত হয়েছে। তিনি জানান, দেহগুলো ছিন্ন ভিন্ন হয়ে গেছে। আত্মঘাতী এই বিস্ফোরণ বুধবার রাতে ঘটেছে বলে মনে করছে পুলিশ।

শরীরের এসব ছিন্নভিন্ন অংশ হাসপাতালে নেওয়া হলে আজ সেগুলোর ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে।

সিভিল সার্জন সত্যকাম চক্রবর্তী জানান, গতকাল বিকেলেই শরীরের টুকরো টুকরো অংশ তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছিলো। পুলিশের সুরতহাল রিপোর্ট হাসপাতালে পৌঁছানোর পর আজ সকালে এসবের ময়নাতদন্ত শেষ হয়।

এর আগে এই পোস্টমর্টেমের জন্যে উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়।

মি. চক্রবর্তী জানান, শরীরের টুকরো টুকরো অংশ পরীক্ষা করে দেখা গেছে ওখানে মোট সাতটি মৃতদেহ ছিলো।

তাদের মধ্যে চারটিই শিশু। একজন পুরুষ আর বাকি দু’জন নারী।

মি. চক্রবর্তী বলেন, “এসব মৃতদেহ ছিন্নভিন্ন অবস্থায় পাওয়া গেছে। বিশেষ করে শরীরের মাঝখানে ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে।”

এ থেকে প্রাথমিকভাবে তারা ধারণা করছেন যে বোমা বিস্ফোরণেই এদের সকলের মৃত্যু হয়েছে। তবে সেটা এখনও নিশ্চিত নয়।

তিনি জানান যে সেটা নিশ্চিত হতে হলে আরো কিছু পরীক্ষার প্রয়োজন রয়েছে।

Related posts