November 17, 2018

আজ থেকে ২২দিন নদীতে ইলিশসহ সকল ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ

a1
এ কে আজাদ, চাঁদপুর : ইলিশ প্রজনন রক্ষায় চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল থেকে লক্ষীপুর জেলার চরআলেকজেন্ডার পর্যন্ত ১শ’ কিলোমিটারে আজ থেকে ২২দিন ইলিশসহ সকল ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

আজ রোববার (৭ অক্টোবর) থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত ২২ দিন মাছের অভয়ায়শ্রম এলাকায় ইলিশ মাছ আহরণ, ক্রয়-বিক্রয়, মওজুদ, পরিবহন ও সরবরাহ করা যাবে না।

চাঁদপুর জেলা মৎস্য বিভাগ সূত্রে জানাযায়, জেলার মতলব উত্তর, মতলব দক্ষিন, চাঁদপুর সদর ও হাইমচর উপজেলায় ৫১ হাজার ১৯০ জন নিবন্ধিত ইলিশ জেলে রয়েছে। এসব জেলেরা এ ২২ দিন যাতে করে নদীতে মাছ আহরণ না করেন, সে জন্য ইতোমধ্যে মাইকিং ও লিফলেট বিতরণ করে তাদেরকে সচেতন করা হয়েছে। মৎস্য আড়ৎ এলাকায় জেলা মৎস্য বিভাগের পক্ষ থেকে ব্যানার সাঁটানো হয়েছে।

চাঁদপুর সদরের তরপুরচন্ডী ইউনিয়নের আনন্দ বাজার এলাকার জেলেরা জানান, তারা বছরের সব সময়ই নদীতে ইলিশসহ অন্যান্য মাছ আহরণ করেন। সরকারের পক্ষ থেকে নিষিদ্ধ সময় ২২ দিন তারা মাছ আহরণ করবেন না। কিন্তু তাদেরকে ২২ দিনের জন্য যে ২০ কেজি চাল খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়, তা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন।

চাঁদপুর জেলা মৎস্যজীবী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মালেক দেওয়ান বলেন, আমরা জেলেদেরকে অভয়াশ্রমকালীন সময়ে ইলিশ আহরণ না করার জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে একাধিক সভা করেছি। তাদেরকে বলা হয়েছে তাদের মাছ ধরার নৌকাগুলো যেন ২২ দিন খাল ও পুকুরে উঠিয়ে রাখেন। কারণ ইলিশ এ সময়ে মিঠা পানিতে নিরাপদ স্থান হিসেবে ডিম ছাড়তে আসে। একটি ইলিশ কমপক্ষে ২২লাখ ডিম ছাড়ে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকী বলেন, জাতীয় সম্পাদ ইলিশ রক্ষা এবং নিরাপদে ইলিশ ডিম ছাড়ার জন্য জেলা ট্রাস্কফোর্স সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন। আর এ ২২ দিন জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, নৌ-পুলিশ, কোস্টাগার্ড, জেলা মৎস্য বিভাগ, উপজেলা প্রশাসন ২৪ ঘন্টা রুটিন অনুযায়ী নদীতে দায়িত্ব পালন করবে। অভয়াশ্রম এলাকার সকল জনপ্রতিনিধি, মৎস্যজীবী নেতা ও জেলেদেরকে নিয়ে একাধিক সভা হয়েছে। জেলা মৎস্য বিভাগ ইলিশ আহরণ থেকে বিরত থাকার জন্য জেলে পাড়াগুলোতে মাইকিং করেছে।

তিনি আরো জানান, ২২ দিনের মধ্যে জেলেদেরকে ২০ কেজি করে চাল খাদ্য সহায়তা হিসেবে প্রদান করা হবে। তারপরেও যদি কোন জেলে আইন অমান্য করে মাছ আহরণ করেন। তাহলে তাদেরকে মৎস্য আইনে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা ও কারাদন্ড প্রদান করা হবে।

Related posts