September 24, 2018

আচরণ বিধি লঙ্ঘনের হিড়িক, প্রার্থীরা দন্ডিত!

রফিকুল ইসলাম রফিক,নারায়ণগঞ্জঃ  নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই প্রার্থীদের আচরন বিধি লঙ্ঘনের হিড়িক লেগে গেছে। আইনের তোয়াক্কা না করেই প্রার্থীরা যত্রতত্র পোষ্টার সাটাঁনোসহ নানাভাবে আচরন বিধি লঙ্ঘন করছে। একজন প্রার্থী আবার আরেকজন প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরন বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে নির্বাচন কমিশনে স্মারকলিপিও দিচ্ছেন। বিশেষ করে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ সমর্থিত মেম্বার প্রার্থীদের বিরুদ্ধে আচরন বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করছেন বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

তবে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকজন চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীকে আচরনবিধি লঙ্ঘনের অপরাধে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। পাশাপাশি আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীদেরও আচরন বিধি মেনে চলতে কড়া হুঁশয়ারী প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট।

সূত্রমতে জানাগেছে, বিগত পাঁচ দিনে শুধুমাত্র সদর উপজেলায় নির্বাচনী আচরন বিধি লঙ্ঘনের অপরাধে গোগনগর ইউনিয়ন পরিসদের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নওশেদ আলীর সমর্থককে নগদ ২ হাজার টাকা ও গোগনগর, কুতুবপুর, এনায়েতনগর, কাশীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১২ জন মেম্বার প্রার্থীকে জরিমানা করা হয়। এছাড়া এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী আসাদুজ্জামান, কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম রসুলকেও আচরন বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে কড়া সতর্ক করে দেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সদর এসিল্যান্ড মাসুম আলী বেগ।

এছাড়াও এপর্যন্ত বিভিন্ন ইউনিয়নে অভিযান পরিচালনা কালে প্রায় ২৫ জন মেম্বার প্রার্থীকে সতর্ক করে দেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট।

এব্যাপারে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাসুম আলী বেগ জানান, প্রার্থী যে দলেরই হউক না কেন, নির্বাচনী আচরন বিধি যিনি লঙ্ঘন করবেন তাকে প্রাথমিক পর্যায়ে সতর্ক করা হচ্ছে। পরবর্তীতে অর্থদন্ড, প্রয়োজনে বিধি অনুযায়ী কারাদন্ড প্রদান করা হবে বলে হুঁশিয়ারী দেন তিনি।

সদর উপজেলা নির্বাচন কমিশনার রশিদ মিঞা বলেন, সুষ্ঠভাবে নির্বাচন পরিচালনার জন্য কমিশন বদ্ধ পরিকর। প্রার্থীরা আচরন বিধি যেন লঙ্ঘন না করেন সেজন্য প্রতিদিন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার কথা জানান তিনি।

এছাড়াও গত ১৭ এপ্রিল জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় সভায় পুলিশ সুপার ড. খন্দকার মহিদ উদ্দিন প্রার্থীদের আচরন বিধি মেনে চলার নির্দেশনা দেন।

একই দিন সদর উপজেলায় আইন-শৃংখলার সভায় জেলা প্রশাসক আনিছুর রহমান মিঞা বলেন, যারা নির্বাচনে দূর্নীতি করার চিন্তা করবেন তারাই ক্ষতিগ্রস্থ হবেন।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/১৯ এপ্রিল ২০১৬/রিপন ডেরি

Related posts