September 21, 2018

অ্যাম্বুলেন্স ভোগান্তিতে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা

ঢাকাঃ জরুরি চিকিৎসা নিশ্চিত করতে সুপ্রিম কোর্টের নির্দিষ্ট অ্যাম্বুলেন্স বা পরিবহন সুবিধা না থাকায় বিচারপতিরা চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। আদালত বহুতল ভবনে নির্মিত হওয়ায় লিফট সুবিধা থাকলেও নেই ট্রলি সিঁড়ির সুবিধা।

সুপ্রিম কোর্টের লিফটগুলোতেও ট্রলি ঢোকাতে সমস্যা হওয়ায় হঠাৎ উপরের তলায় কোনো বিচারপতি বা অন্য কেউ অসুস্থ হয়ে গেলে তাকে নিচে নামাতে হচ্ছে কোলে তুলে। সুপ্রিম কোর্টের এনেক্স ভবনের লিফটে ট্রলি ঢোকানো কঠিন।

সোমবার (১৮ জুলাই) এক বিচারপতি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে এজলাসের ভিতরে পড়ে গেলে তাকে নিচে নামাতে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

ওই ঘটনায় ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মনিরুজ্জামান রুবেল বলেন, ‘সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম মামলা শুনানির এক পর্যায়ে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে মেঝেতে পড়ে যান। তাকে সবাই কোলে তুলে নিচে নামানো হয়। পরে তাতে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে ভর্তি করানো হয়।’

তিনি বলেন, ‘এই ভবনে যে লিফটগুলো আছে সেগুলোতে ট্রলি ঢোকানো কঠিন। ট্রলি ভিতরে ঢোকাতে না পেরে আমরা বিচারপতি মহোদয়কে কোলে করে তুলে নিচে নামিয়েছি।’

‘সুপ্রিম কোর্ট কর্তৃপক্ষের নিজস্ব অ্যাম্বুলেন্স না থাকায় সুপ্রিম কোর্ট বারের অ্যাম্বুলেন্সে তুলে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়’, বলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মনিরুজ্জামান রুবেল।

‘লিফটে করে এ রকম অসুস্থ ব্যক্তিকে নামাতে না পেরে আমার কাছে খারাপ লেগেছে। তিনি একজন হাইকোর্টের বিচারপতি। তাকে তাড়াতাড়ি করে লিফটে নামাতে পারলাম না। লিফটে ট্রলি ঢোকানো না গেলেও ট্রলি সিস্টেম সিঁড়ি থাকলেও হতো। সেটিও নেই’, বলেন রাষ্ট্রপক্ষের ওই আইনজীবী।

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিসহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের জন্য সার্বক্ষণিক ডাক্তারের ব্যবস্থাও নেই। এ রকম দুর্ঘটনায় পরিস্থিতি দ্রুত সামাল দিতে সুপ্রিম কোর্টে প্রয়োজনীয় অ্যাম্বুলেন্স, ডাক্তারসহ সব কিছু থাকা জরুরি বলেই মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার সাব্বিার ফয়েজ বলেন, ‘বিচারপতি মোস্তফা জামান এখন সুস্থ আছেন। তার তেমন কোনো সমস্যা হয়নি। আমরা আশা করছি তিনি খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন।’

অ্যাম্বুলেন্স প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাদের অ্যাম্বুলেন্স আছে তো।’ তবে বিচারপতিসহ উচ্চ আদালতের অন্যান্য কর্মকর্তাদের জন্য প্রয়োজনীয় ডাক্তারের ব্যাপারে স্পষ্ট জবাব পাওয়া যায়নি সাব্বির ফয়েজের কাছে।

Related posts