November 16, 2018

অব্যাহত গণমাধ্যম বন্ধ ও সাংবাদিক গ্রেফতার সরকারের বাকশালী চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ – বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টি


ঢাকাঃ ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষনেতা ও বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান আবু তাহের চৌধুরী সম্প্রতি সরকার কর্তৃক বন্ধ করে দেয়া দেশের জনপ্রিয় অনলাইন পত্রিকা আমার দেশ, দিনকাল ও শীর্ষ-নিউজসহ ৩৫টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল অবিলম্বে খুলে দেয়ার জোর দাবি জানিয়ে বলেছেন,এদেশের মানুষের গণতন্ত্র ও বাক-স্বাধীনতার ন্যায্য অধিকার অর্জন করার জন্যই মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল। সংবাদপত্রের কণ্ঠ রোধ করা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী।

তিনি বলেন, বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতৃবন্দ দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবর্গ আজ করাগারে নির্যাতন-নিপীড়ন ভোগ করছেন। আজও সারা দেশে বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের ধর-পাকড় চলছে। প্রতিদিন শতশত নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। এই ভাবে একটি গণতান্ত্রিক দেশ চলতে পারেনা। অবিলম্বে ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতৃবন্দকে নি:শর্ত মুক্তি দেওয়ার আহবান জানান।

আজ মঙ্গলবার বিকালে শারিাতনগরস্থ পার্টির মহানগর কার্যালয়ে বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টি-ঢাকা মহানগরের উদ্যোগে জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধ এবং অব্যাহত গণমাধ্যম বন্ধের প্রতিবাদে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

নেতৃবৃন্দ বলেন, আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান, বিশিষ্ট সাংবাদিক শফিক রেহমান ও ইটিভির সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম সহ অসংখ্য ব্যক্তিকে কারাগারে রেখে দেশকে বাকশালী কারাগারে পরিনত করা হয়েছে। অবিলম্ভে আটক সকল সাংবাদিক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিগণের মুক্তিরও দাবী জানান নেতৃবৃন্দ।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, মানুষের মুখের ভাষাকে কেড়ে নেয়ার বাকশালী চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ থেকে বিরত থাকুন। গণমাধ্যমকে মানবতার পক্ষে কথা বলতে দিন। ভিন্নমত ও গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করার পরিণতি শুভ হবে না বলে সরকারকে হুঁশিয়ার করেন নেতৃবৃন্দ।

নেতৃবৃন্দ জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধে দলমত নির্বিশেষে জাতীয় ঐক্য গঠনের জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, ঐক্যবদ্ধভাবে জঙ্গী, সন্ত্রাসী ও নির্দেশদাতাদের নির্মূল করতে যা যা করার দরকার তাই করতে হবে। এ জন্য সরকারকেই সর্বপ্রথম উদ্যোগ নিতে হবে বলে অভিমত প্রকাশ করেন।

পার্টির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও ঢাকা মহানগরের সভাপতি এড. মোঃ এজাজ হোসেনের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসানের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান জনাব আবু তাহের চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন মহাসচিব মোঃ আবুল কাশেম, অতিরিক্ত মহাসচিব সাখাওয়াত হোসেন চৌধূরী শিপন, দপ্তর সম্পাদক মোঃ নুরুল ইমলাম সরকার, ঢাকা মহানগরের সহ সভাপতি গাজী মোঃ সফি উল্লাহ, ফজলুল হক সিকদার, যুগ্ম- মহাসচিব এড.আল-আমিন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এস.এম কামাল উদ্দিন ইসমাঈল, ইলিয়াসুর রহমান, জাকির হোসেন রোহান প্রমূখ।

Related posts