September 22, 2018

অবশেষে ক্ষতিগ্রস্ত মৎস প্রকল্পের বাধেঁর কাজ শুরু

775
আল-মামুন,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: অবশেষে শুরু হলো ক্ষতিগ্রস্ত মৎস প্রকল্পের বাধেঁর কাজ।  খাগড়াছড়ি জেলাধীন লক্ষীছড়ি উপজেলায় মৎস্যচাষ প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রকল্প এর ২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরে বাস্তবায়িত রাঙ্গামাটি জেলা মৎস্য অফিস হতে বাস্তবায়িত পার্বত্য চট্রগ্রাম অ লে মৎস্য চাষ সম্প্রসারন ও উন্নয়ন প্রকল্পের (৩য় পর্যায়) এর লক্ষীছড়ি উপজেলার মংহলা পাড়া এলাকার একটি প্রকল্প।

প্রকল্প বাস্তবায়ন কালীন সময়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকৌশলী একবার ও প্রকল্প বাস্তবায়ন স্থানে আসেননি বলে অভিযোগ করেছের প্রকল্পের মালিক সাজাই মার্মা তবে বিষয়টি সঠিক নয় বলে প্রমাণিত হয়।

অন্যদিকে এ বিষয় নিয়ে সংশ্লিষ্ট প্রজেক্টের নেতৃবৃন্দরা সরেজমিনে এসে বাধঁটি বৃষ্টির পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেখে নিয়োজিত ঠিকাদারকে পূর্ণরায় নিমার্ণের নিদ্দেশ দেওয়ার পর অবশেষে শুরু হয় ক্ষতিগ্রস্ত মৎস প্রকল্পের বাধেঁর কাজ। সম্প্রতি এ উন্নয়ন প্রকল্পের কাজের পর পর আস্মমিক ভারী বর্ষণ ও বৃষ্টি পাতে বাধাঁটি ভেঙে পরে। এ নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়ায় লেখা লেখী হয়।

প্রকল্প এলাকা কাজের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, লক্ষীছড়ি উপজেলায় মৎস্যচাষ বাস্তবায়ন প্রকল্প এর ২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরে বাস্তবায়িত রাঙ্গামাটি জেলা মৎস্য অফিস হতে বাস্তবায়িত পার্বত্য চট্রগ্রাম অ লে মৎস্য চাষ সম্প্রসারন ও উন্নয়ন প্রকল্পের (৩য় পর্যায়) এর লক্ষীছড়ি উপজেলার মংহলা পাড়ার এ প্রকল্প বাঁধে পাকা সেচ ড্রেইনের জন্য কাজ শুরু করেছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

এদিকে বাস্তবায়ন কারী প্রতিষ্ঠান রাঙ্গামাটি জেলা মৎস্য অফিসের দায়িত্ব প্রাপ্ত উপ-সহকারী প্রকৌশলী ফারুখ হোসেন জানান, আমরা বিষয়টি তদন্ত করেছি। বৃষ্টির পানি সাথেতো কারো হাত নেই। তবে সেচ ড্রেনের কাজ শুরু করা হয়েছে। তবে একই উপজেলায় বাস্থবায়িত এ প্রকল্পের কাজ সম্পূন্ন রূপে সঠিক বলে দাবী করলেন ঠিকাদার।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts