September 19, 2018

অপুর কথায় কেন চমকে উঠলেন বিশ্বাস?

a6111081cfcdb6fba94766281c71c21d-588a0be5eadd0

ঘুম থেকে উঠে বড়জোর এক কাপ চা বা নাস্তা খাওয়ার কথা পরিচালক বুলবুল বিশ্বাসের! না, তিনি সেটা খাওয়ার ফুসরত পাননি। তার আগেই অন্য কিছু ‘খেতে’ হলো। রীতিমতো তিনি খেলেন ‘চমক’! বলা যায়, খবর শুনে প্রপাত ধরণিতল অবস্থা ‘রাজনীতি’ ছবির তরুণ এ পরিচালকের।

কারণটা দেশের কয়েকটি জাতীয় দৈনিক ও অনলাইনে প্রকাশিত সাম্প্রতিক কয়েকটি সাক্ষাৎকার। গেল তিন দিন ধরে অজ্ঞাতস্থান থেকে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস জানাচ্ছেন নানা তথ্য। আর তাতেই চমকে গেলেন পরিচালক বুলবুল বিশ্বাস।

কী বললেন অপু?

ফেসবুকের একটি প্রোফাইল থেকে ভয়েস কল করে অপু জানিয়েছেন শিগগিরই ফিরছেন তিনি। আড়ালে যাওয়ার পর যে ছবিগুলোর শুটিং আটকে গিয়েছিল, মূলত সেসবের কাজ শেষ করবেন প্রথমে। এরপর নতুন ছবির কাজেও যোগ দেবেন তিনি।

এরমধ্যে ‘রাজনীতি’ ছবির কাজও শেষ করতে চান এ ঢালিউড কুইন। আর ফেব্রুয়ারির দিকেই বিএফডিসিতে গিয়ে শুটিং করবেন তিনি।

এক ফ্রেমে বুলবুল ও অপুপ্রায় এক বছর পর ঠিকানা গোপন রেখে ‌‘গায়েবি’ বার্তায় খুশি হওয়ারই কথা ছবির পরিচালক বুলবুল বিশ্বাসের।
বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগ করা হয় ‘রাজনীতি’র পরিচালকের সঙ্গে। জানতে চাওয়া হয় ছবির বাকি অংশের শুটিং শেষ করছেন কবে? এক বছর তো হয়ে গেল। জবাবে বুলবুল শোনালেন খুশির খবর। বললেন, ‘আমরা ছবির প্রায় সব দৃশ্যধারণ শেষ করেছি অনেক আগেই! শুধু একটি আইটেম গানের আটকে ছিলাম। আর সেটা ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই বিএফডিসিতে সেট তৈরি করে শেষ করে ফেলব।’
তার মানে অপুর অন্তর্ধান থেকে প্রত্যাবর্তন ঘটছে ‘রাজনীতি’র আইটেম গানের মাধ্যমে! আপনি ভাগ্যবান বটে! নিশ্চয়ই আপনাকেও সিডিউল দিয়েছেন মেসেঞ্জার কল থেকে; অডিও না ভিডিও? ঠিক কী বলেছেন তিনি?
একটু হয়তো থামলেন। বিরস কণ্ঠে বললেন, ‘কী যে বলেন। আমি তো আর আপনাদের মতো সৌভাগ্যবান না! আমি কোনও কল পাইনি। এমনকি জানিও না, তিনি কোথায় আছেন কেমন আছেন। সবই জেনেছি পত্রিকার মাধ্যমে।’
তাহলে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে আপনার শুটিং? অপু বিশ্বাস তো সবখানেই বলছেন, ‘রাজনীতি’সহ অন্য যে ছবিগুলো তার কারণে আটকে ছিল- সেগুলো ফিরেই শেষ করে দেবেন। শুটিং করবেন ফেব্রুয়ারি থেকে। তবে? নাকি কেথা লুকাচ্ছেন!
এবার বুলবুল বিশ্বাস সত্যিই এক গ্লাস জল খাওয়ার তৃষ্ণা অনুভব করলেন, হয়তো।
বুলবুল বললেন, ‘এটা কীভাবে সম্ভব! আমি তো কিছুই জানি না। আমার ছবির কাজ হবে অথচ আমি জানব না! আর ছবির কাজ তো শেষ!’
শেষ? তাহলে অপু বিশ্বাস তো আপনাদের ক্ষতির কথা ভেবেই এগুলোর কাজ আগে করতে চাইছেন- এমন কথায় বুলবুলের ভাষ্য, ‘একটি নায়কনির্ভর (শাকিব খান) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য নায়িকা যতটুকু সময় পান এতে (রাজনীতি) তার চেয়েও বেশি জায়গা পেয়েছেন অপু বিশ্বাস। এবং তার অংশের শুটিং বহু আগেই শেষ হয়েছে। নতুন করে আবার কী!’
তাহলে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের শুটিংয়ে কী হবে? আপনি নিশ্চয়ই লুকোচ্ছেন কিছু। এবার বুলবুল ঝেড়ে কাশেন। বললেন, ‘এবারের শুটিংয়ে থাকবেন শুধু শিবা আলী খান ও অমিত হাসান। এটির কাজ চলতি মাসেই হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অমিত ভাইয়ের সিডিউল না পাওয়াতে কাজটি হয়নি। তাই ভাবছি ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে এটি করে ফেলব। এবং এটাই ছবির শেষ শুটিং। এখানে শাকিব খান কিংবা অপু বিশ্বাসের কোনও অংশ নেই।’
এই সেই ফেসবুক আইডি, যার মাধ্যমে মিডিয়ার সঙ্গে টুকটাক কথা বলছেন অপু!এদিকে, ‘অপু বিশ্বাস’ নামের একটি ফেসবুক প্রোফাইল থেকে মেসেঞ্জারের মাধ্যমে কথা বলছেন অপু বিশ্বাস! তবে সেই আইডিতে বেশ কিছু তথ্য অসামঞ্জস্যপূর্ণ। এরমধ্যে অন্যতম অপুর কর্মক্ষেত্র যুগান্তর পত্রিকা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। বিষয়টি বেশ বিভ্রান্তিকর বলে বলে মনে করা হচ্ছে। অপু সেই ফেসবুকের মেসেঞ্জারের মাধ্যমে বিভিন্ন মিডিয়ায় দাবি করেন, তিনি এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন। শুটিংয়ে ফিরবেন ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে।
এদিকে, প্রায় দশ মাস ধরে অপু বিশ্বাস ‘নিখোঁজ’। এসময় চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট কারও সঙ্গে তিনি যোগাযোগ করেননি। তার নিকেতনের বাসায় তাকে পাওয়া যায়নি। এমন কি তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও বন্ধ পাওয়া যায়। এ বিষয়ে টু-শব্দটিও মেলেনি তার প্রধান নায়ক শাকিব খানের মুখ থেকে। এ বিষয়ে হয়নি কোনও জিডি কিংবা থানা-পুলিশ। অথচ এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত পুরো মিডিয়ার কেউই নিশ্চিত নন- অপু আসলে কোথায় এবং কেন তার এই অন্তর্ধান?
তাই গেল ছ’মাসে শাকিব খানের সঙ্গে অপুর বিয়ে, সংসার, সন্তান, অভিমানসহ নানা ধরনের গুজব ছড়িয়েছে।

এসময় অপু বিশ্বাসের মামা স্বপন কুমার সাহা জানান, তার ভাগনি ভারতের শিলিগুড়িতে মায়ের সঙ্গে আছেন। নিজের মতো করে থাকতে চান অপু। আর তাই পরিবারের সদস্য ছাড়া কারও সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইছেন না তিনি।
অপু বিশ্বাস/ ছবি: সংগৃহীতএর আগে ২০১২ সালের দিকে অপু বিশ্বাস বেশ কিছুদিনের জন্য আড়ালে ছিলেন। তখন তিনি বলেছিলেন, ‘নিজেকে নতুন রূপে উপস্থাপনের জন্য একটু আড়ালে চলে গিয়েছিলাম।’ পরবর্তী সময়ে দর্শকও অন্য অপুকে পেয়েছিল। স্লিম অপু সেবার বেশ প্রশংসা কুড়ান।
এবারের শেষটা কেমন হচ্ছে, তার প্রতি ভক্তদের থাকছে অগাধ আগ্রহ!

সুত্রঃ বাংলা ট্রিবিউন

Related posts