November 18, 2018

অনুপ্রবেশ মোকাবিলায় ভারতীয় ড্রোন!

বাংলাদেশ সীমান্তে অনুপ্রবেশ মোকাবিলায় ভারত ড্রোন ব্যবহারের কথা বিবেচনা করছে বলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক
সূত্রে জানা গেছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ সীমান্তেÍ বিএসএফ অতিরিক্ত বাহিনী নিয়োগ করেছে। বাংলাদেশের
সঙ্গে ভারতের চার হাজার কিলোমিটার সীমান্তের মধ্যে ১১৩৮ বিলোমিটার সীমা কে অনুপ্রবেশের পথ
হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ভারতের পশ্চিম সীমান্তে ড্রোণ ব্যবহার করে সাফল্য
পাওয়া গিয়েছে। এবার তাই পূর্ব-সীমান্তেও অনুপ্রবেশের ক্ষেত্রে নজরদারির জন্য তা ব্যবহার করা হতে পারে।
দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী সীমান্তে অনুপ্রবেশ ও অপরাধমূলক কাজ বন্ধে নিয়মিত ব্যবস্থা গ্রহণের পরও
ড্রোণ ব্যবহারের সিদ্ধান্তকে খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

ভারতের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা ও ড্রোণ শীর্ষক এক আলোচনা চক্রে ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব জানিয়েছেন,
সীমান্ত রক্ষা ও অভ্যন্তরীণ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি মোকাবিলার ড্রোণ ব্যবহার ভাল উপায় হতে পারে।
সেজন্য আইন তৈরির কথাও ভাবা হচ্ছে। সীমান্ত পাহারা দেবার জন্য বিএসএফ রাশিয়ায় তৈরি হেলিকপ্টার
ব্যবহার করছে।

এই অত্যাধুনিক হেলিকপ্টারগুলি থেকে রাতেও নজরদারি চালানো সম্ভব হবে। বিএসএফের বিমান শাখায়
১৩টি হেলিকপ্টার রয়েছে। এজন্য আগরতলা, রাঁচি, রায়পুর, শ্রীনগর ও সফদরজঙে ঘাঁটি তৈরি করা
হয়েছে।

Related posts